দুই মামলায় জামিন পেলেন খালেদা

ডেস্ক নিউজ:

এক লাখ টাকা বন্ডে জিয়া অরফানেজ ট্রাস্ট ও জিয়া চ্যারিটেবল ট্রাস্ট দুর্নীতি মামলায় জামিন পেয়েছেন বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়া।

বৃহস্পতিবার পুরান ঢাকার বকশীবাজারে ঢাকার পাঁচ নম্বর বিশেষ জজ ড. মো. আকতারুজ্জামানের আদালত এই জামিন মঞ্জুর করেন।

তিনটি গ্রেপ্তারি পরোয়ানা মাথায় নিয়ে বুধবার দেশে ফেরা বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়া বৃহস্পতিবার বেলা ১১টা ২০ মিনিটে রান ঢাকার বকশীবাজার আলিয়া মাদ্রাসায় স্থাপিত বিশেষ আদালতে যান।

গত ৯ অক্টোবর বাসে পেট্রোলবোমা হামলা মামলায় বিএনপির চেয়ারপারসনের বিরুদ্ধে গ্রেপ্তারি পরোয়ানা জারি করেন কুমিল্লার জেলা ও দায়রা জজ জেসমিন বেগম।

১২ অক্টোবর সাবেক এই প্রধানমন্ত্রীর বিরুদ্ধে ঢাকার দুটি আদালত আরো দুটি গ্রেপ্তারি পরোয়ানা জারি করেন। মানহানির মামলায় ঢাকা মহানগর হাকিম নূর নবী এবং জিয়া অরফানেজ ট্রাস্ট মামলায় বিশেষ আদালতের বিচারক ড. আক্তারুজ্জামান এ দুটি পরোয়ানা জারি করেন।

মানহানি মামলায়ও খালেদা জিয়া আত্মসমর্পণ করে জামিন চাইবেন।

তিন মাস পর যুক্তরাজ্য থেকে বুধবার দেশে ফিরেছেন খালেদা জিয়া। ওইদিন বিকেল সোয়া ৫টার দিকে তাকে বহনকারী এমিরেটসের বিমানটি হযরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে অবতরণ করে।

বিমানবন্দরের ভেতরে বিএনপি চেয়ারপারসনকে স্বাগত জানান দলের মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর। এসময় স্থায়ী কমিটির সদস্য ড. খন্দকার মোশাররফ হোসেনসহ দলের কেন্দ্রীয় নেতারা বিমানবন্দরে উপস্থিত ছিলেন। বিমানবন্দর থেকে বেরিয়ে খালেদা জিয়া গুলশানের বাসভবনে যান।

এদিকে খালেদা জিয়াকে অভ্যর্থনা জানাতে বিমানবন্দরের বাইরে অবস্থান নেয় দলের হাজার হাজার কর্মী। তাদের অবস্থানের কারণে বিমানবন্দর সড়কে দেখা দেয় যানজট। খালেদা জিয়া হাত নেড়ে তাদের শুভেচ্ছার জবাব দেন।

গত ১৫ জুলাই লন্ডন গিয়েছিলেন খালেদা জিয়া। সেখানে বড় ছেলে তারেক রহমানের বাড়িতে পরিবারের অন্যদের সঙ্গে কোরবানির ঈদ করেন তিনি।

চোখ ও হাঁটুর চিকিৎসা নিতে খালেদার সফরে অন্য উদ্দেশ্য রয়েছে বলে দাবি করছিলেন আওয়ামী লীগের নেতারা।

কক্সবাজার নিউজ সিবিএন’এ প্রকাশিত কোনও সংবাদ, কলাম, তথ্য, ছবি, পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার দণ্ডনীয় অপরাধ।

সর্বশেষ সংবাদ

এলাকার উন্নয়নই আমার স্বপ্ন -কাউন্সিলর সাহাব উদ্দিন সিকদার

শহীদ জাফর মাল্টিডিসিপ্লিনারী একাডেমিক ভবনের উদ্বোধন

মালয়েশিয়ায় বাংলাদেশি কর্মীদের ন্যায় বিচার কোথায়?

আইনগত ভিত্তি পেলেই ইভিএম ব্যবহার : সিইসি

খাগড়াছড়িতে ব্রিজ ভেঙে ট্রাক নদীতে, নিখোঁজ ১

সাগরে বৈরি আবহাওয়ার কবলে পড়ে ফিশিং ট্রলার ডুবি

‘ডিজিটাল নিরাপত্তা আইন মুক্তগণমাধ্যমের জন্য বড় বাধা হয়ে দাঁড়াবে’

ফাইভ-জি মোবাইল নেটওয়ার্কে বিকিরণের ঝুঁকি বেশি?

রাখাইনে এখনো থামেনি সেনা ও মগের বর্বরতা

জাতীয় ঐক্য নিয়ে অস্বস্তিতে আ’লীগ

প্রধানমন্ত্রীর জাতিসঙ্ঘ সফরে প্রাধান্য পাচ্ছে রোহিঙ্গা ইস্যু

সাকা চৌধুরীর কবরের ‘শহীদ’ লেখা নামফলক অপসারণ করলো ছাত্রলীগ

তিন মাসের জন্য প্রত্যাহার আনোয়ার চৌধুরী

মনোনয়ন দৌড়ে শতাধিক ব্যবসায়ী

ফখরুল-মোশাররফ-মওদুদ যাচ্ছেন ঐক্য প্রক্রিয়ার সমাবেশে

এবার ভারতের কাছেও শোচনীয় হার বাংলাদেশের

রোহিঙ্গা শিশুদের শিক্ষায় ২০০ কোটি টাকা অনুদান বিশ্বব্যাংকের

বিরোধীরা সব জায়গায় সমাবেশ করতে পারবে

চাকরি না পেয়ে সুইসাইড নোট লিখে খুবি ছাত্রের আত্মহত্যা

নবাগত এসপি মাসুদ হোসেনের চকরিয়া থানা পরিদর্শন