ইসি নিয়ে কিছুটা আশাবাদী বিএনপি

ডেস্ক নিউজ:

সংলাপ শেষে বিএনপি দাবি করেছে, নির্বাচন কমিশন আলোচনার শেষের দিকে প্রতিষ্ঠানের সীমাবদ্ধতার কথা বলেছে। প্রতিষ্ঠানটিও এও মনে করে, যে দেশে বর্তমানে সেই অবস্থা নেই, যে অবস্থায় তারা তাদের দায়িত্ব পুরো পালন করতে পারছে না এবং গণতন্ত্রের যে আসল রূপ, সেই রূপ বাংলাদেশে নেই।

তিনি জানান, তার দল নির্বাচন কমিশনকে ২০ দফা প্রস্তাব দিয়েছে। বিএনপির মহাসচিব দাবি করেন, ইসির পক্ষ থেকে তাদের সীমাবদ্ধতার কথা বলা হয়েছে। তার ভাষ্য, আলোচনার শেষ দিকে এসে তারা বিএনপির প্রতিনিধি দলকে জানিয়েছেন, তারা (ইসি) চেষ্টা করবেন। নিজেদের মধ্যে বসবেন, বসে দেখবেন, তারা কী করতে পারেন।

নির্বাচন কমিশন থেকে কি আশা নিয়ে ফিরছেন বা কি উপলব্ধি হয়েছে— এমন প্রশ্নের উত্তরে মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর বলেন, আমরা দুই ঘণ্টা ৩৫ মিনিট আলাপ করেছি।

শেষের দিকে তারা বলেছেন, অনেকখানি সীমাবদ্ধ আছেন। তবে এ কথাও তারা স্বীকার করেছেন, যে দেশে বর্তমানে সেই অবস্থা নেই, যে অবস্থায় তারা তাদের দায়িত্ব পুরো পালন করতে পারেন।

মির্জা ফখরুল বলেন, তারা বলেছেন, অত্যন্ত দুঃখের সঙ্গে বলতে হয় গণতন্ত্রের যে আসল রূপ, সেই রূপ বাংলাদেশে নেই।

সহায়ক সরকারের বিষয়ে ইসির মনোভাব কেমন ছিল, এমন প্রশ্নের উত্তরে মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর বলেন, তারা বলেছেন, তাদের সীমাবদ্ধতা আছে। তারা চেষ্টা করবেন। নিজেদের মধ্যে বসবেন, বসে দেখবেন, তারা কী করতে পারেন।

এরইমধ্যে ইসি বলেছে, তারা রাজনৈতিক দলগুলোর মধ্যে মধ্যস্থতারকারীর ভূমিকা পালন করবে না, এমন প্রশ্নের উত্তরে বিএনপির মহাসচিব বলেন, না, আজকে তারা এ কথা বলেননি। তারা বলেছেন, যে, তারা নিজেরা বসবেন, বসে আলাপ করে দেখবেন, তাদের কী কী সুযোগ আছে।

এই সংলাপ করে আপনারা সন্তুষ্ট কী না, ফখরুল ইসলাম বলেন, আমরা বরাবরই বলে এসেছি, বর্তমান রাজনৈতিক পরিস্থিতি, সরকারের যে প্রচণ্ডরকম অগণতান্ত্রিক আচরণ, সেইখানে খুব বেশি আশাবাদী হওয়ার তো কোনও কারণ আছে বলে আমার মনে হয় না। তবে কিছুটা তো বটেই, আশাবাদী।

সাংবাদিকদের সঙ্গে কথা বলার সময় মির্জা ফখরুলের সঙ্গে বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্যরা ছিলেন। তারা হলেন, ড. খন্দকার মোশাররফ হোসেন, ব্যারিস্টার মওদুদ আহমদ, ব্যারিস্টার জমির উদ্দিন সরকার, এম তরিকুল ইসলাম, লেফটেন্যান্ট ( অব) মাহবুবুর রহমান, রফিকুল ইসলাম মিঞা, মীর্জা আব্বাস, গয়েশ্বর চন্দ্র রায়, ড. মঈন খান, নজরুল ইসলাম খান, আমির খসরু মাহমুদ চৌধুরী, চেয়ারপারসনের উপদেষ্টা কাউন্সিলের সদস্য এ এস এম আবদুল হালিম, ইসমাঈল জবি উল্লাহ, আব্দুর রশীদ সরকার, সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবির রিজভী আহমদ।

বিএনপির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর সাংবাদিকদেরকে বলেন, আমরা বলেছি লেবেল প্লেয়িং ফিল্ড তৈরি করতে হবে। সকল রাজনৈতিক দলগুলোকে সভা-সমাবেশ করার সুযোগ সমানভাবে দিতে হবে।

রোববার সকাল ১১ টায় নির্বাচন কমিশনের সম্মেলন কক্ষে বিএনপির সঙ্গে সংলাপ শুরু হয়। প্রধান নির্বাচন কমিশন কে এম নুরুল হুদা কমিশনের পক্ষে নেতৃত্ব দেন। এছাড়া ইসির কমিশনার, ভারপ্রাপ্ত সচিব হেলালুদ্দীন আহমদ উপস্থিত ছিলেন।

সর্বশেষ সংবাদ

সমুদ্র সৈকতে গোসলে নেমে আরো এক ছাত্র প্রাণ হারালো

কক্সবাজারের সাংবাদিকতার যতকথা, পর্ব-১৮

হালদা নদী দূষনঃ এশিয়ান পেপার মিলের উৎপাদন বন্ধের নির্দেশ

ছাত্রদলের সভাপতি-সাধারণ সম্পাদক পদপ্রার্থী যারা

পার্বত্য চট্টগ্রামকে ভারতের অবিচ্ছেদ্য অংশ দাবি

যেকোনো সময় যে কাউকে নিজের কাছে যাওয়ার অনুমতি প্রধানমন্ত্রীর

শাহজালাল বিমানবন্দরে ১০ হাজার পিস ইয়াবাসহ উখিয়ার জসিম আটক

২০১৯ সালের প্রথমার্ধে ৮.৩৬ মিলিয়ন পর্যটককের দুবাই ভ্রমণ

কাবুলে বিয়ের অনুষ্ঠানে আত্মঘাতী হামলা, নিহত ৬৩

রোহিঙ্গা প্রত্যাবাসন নিয়ে পরিষ্কার করে কিছু বলছে না সরকার

ছাত্রলীগ নেতা রায়হানের জামিন লাভ

লোহাগাড়ায় কার-মাহিন্দ্রা সংঘর্ষে নিহত ১: আহত ১৫

কোরবানির মাংস পেয়ে খুশিতে রোহিঙ্গা শিশুদের উচ্ছ্বাস!

চকরিয়ায় চিংড়ি জোনের শীর্ষ সন্ত্রাসী আল কুমাস গ্রেপ্তার

রোহিঙ্গা প্রত্যাবাসন অনিশ্চিত : ট্রাস্কফোর্সের সভায় কোন সিদ্ধান্ত হয়নি

কোনোরকম যুদ্ধ ছাড়াই ভারতের ১১ যুদ্ধ বিমান বিধ্বস্ত!

লোহাগাড়ায় মেট্রেসের গোডাউনে আগুন

সিএমপি স্কুল এন্ড কলেজ : ‘মেধার সাথে ভালো মানুষ গড়ার পরিচর্চা করে’

ভারতে চিকিৎসা করাতে গিয়ে কলকাতা থেকে লাশ হয়ে ফিরল দুই বাংলাদেশী

মেসেঞ্জারের কথোপকথন শুনতো ফেসবুক কর্মীরা