হাফেজ মুহাম্মদ কাশেম, টেকনাফ:

টেকনাফের জালিয়াপাড়া থেকে বিজিবি অভিযান চালিয়ে ৮৬ লক্ষ ৭ হাজার টাকা মুল্যের ২৮ হাজার ৬৯০ পিস ইয়াবা বড়ি উদ্ধার করেছে। তবে রাতের অন্ধকারের সুযোগে ইয়াবা চোরাকারবারীরা পালিয়ে যেতে সক্ষম হয়েছে বলে জানা গেছে। উদ্ধারকৃত ইয়াবা ট্যাবলেটগুলো ব্যাটালিয়ন সদরে জমা রাখা হয়েছে। যা পরবর্তীতে উর্দ্ধতন কর্মকর্তা, মাদকদ্রব্য অধিদপ্তরের প্রতিনিধি, স্থানীয় গণ্যমান্য ব্যক্তিবর্গ ও মিডিয়া কর্মীদের উপস্থিতিতে ধ্বংস করা হবে।

টেকনাফ-২ বিজিবি’র পরিচালক অধিনায়ক এস এম আরিফুল ইসলাম জানান ‘বিশ্বস্ত গোয়েন্দা সূত্রের মাধ্যমে জানা যায় টেকনাফ ইউপিস্থ দক্ষিণ জালিয়াপাড়া গ্রামের পার্শ্বে অবস্থিত মাঠের মধ্যে ইয়াবা ক্রয়-বিক্রয় হতে পারে। উক্ত সংবাদের ভিত্তিতে ২ বর্ডার গার্ড ব্যাটালিয়নের অধীনস্থ নাজিরপাড়া বিওপির হাবিলদার মোঃ নজরুল ইসলামের নেতৃত্বে একটি বিশেষ টহল দল দক্ষিণ জালিয়াপাড়া গ্রামে অবস্থিত মাঠের এক পাশে অবস্থান নিয়ে ওঁৎ পেতে থাকে। পরবর্তীতে ১১ অক্টোবর রাত সাড়ে ১২টায় একজন ব্যক্তিকে একটি ব্যাগ হাতে করে মাঠের মধ্য দিয়ে যাওয়ার সময় টহল দল তাকে চ্যালেঞ্জ করে। আকস্মিক বিজিবি টহল দলের উপস্থিতি লক্ষ্য করা মাত্রই সে তার হাতে থাকা ব্যাগটি ফেলে দ্রুত দৌঁড়ে পালিয়ে যাওয়ার চেষ্টা করলে টহল দল তার পিছু ধাওয়া করে। এক পর্যায়ে ইয়াবা পাচারকারী অন্ধকারের সুযোগ নিয়ে পার্শ্ববর্তী গ্রামের ভেতর পালিয়ে যায়। পরবর্তীতে টহল দল ইয়াবা পাচারকারী কর্তৃক ফেলে যাওয়া ব্যাগটি তল্লাশী করে ৮৬ লক্ষ ৭ হাজার টাকা মূল্যমানের ২৮ হাজার ৬৯০ পিস ইয়াবা ট্যাবলেট উদ্ধার করতে সক্ষম হয়। উদ্ধারকৃত ইয়াবা ট্যাবলেটগুলো ব্যাটালিয়ন সদরে জমা রাখা হয়েছে। যা পরবর্তীতে উর্দ্ধতন কর্মকর্তা, মাদকদ্রব্য অধিদপ্তরের প্রতিনিধি, স্থানীয় গণ্যমান্য ব্যক্তিবর্গ ও মিডিয়া কর্মীদের উপস্থিতিতে ধ্বংস করা হবে’।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •