হাটহাজারী গার্লস স্কুল এন্ড কলেজের শিক্ষার্থীদের মানববন্ধন

Hathazari-Image-Human-Chain-2.jpg

মোহাম্মদ হোসেন, হাটহাজারী,
হাটহাজারী গার্লস স্কুল এন্ড কলেজের অধ্যক্ষ আলী আহম্মদ এর উপর বর্বরোচিত হামলার প্রতিবাদে ক্লাস বর্জন করে উপজেলা পরিষদ সম্মুখস্থ চট্টগ্রাম-রাঙ্গামাটি মহাসড়কের পার্শ্বে মানববন্ধন করেছে শিক্ষার্থীরা।
গতকাল শনিবার (১৯ নভেম্বর) সকাল ১০টায় ক্লাস বর্জনকারী শিক্ষার্থীর অংশগ্রহনে অনুষ্ঠিত ওই মানবন্ধনে কলেজটির পরিচালনা পরিষদ, বাশিস এর জেলা ও উপজেলা শিক্ষক নেতৃবৃন্দ, অভিভাবক, শিক্ষক-শিক্ষিকা ও এলাকার শত শত জনসাধারণ অংশ নেয় বলে গণমাধ্যমকে জানান শিক্ষক পরিষদের সাধারণ সম্পাদক মো. হোসেন।
তাছাড়া মানবন্ধন কর্মসূচীর পূর্বে হাটহাজারী গার্লস স্কুল এন্ড কলেজ ম্যানেজিং কমিটি ও শিক্ষক পরিষদের যৌথ উদ্যোগে ওই ঘটনার প্রতিবাদে একটি প্রতিবাদ সভা অনুষ্ঠিত হয়। উক্ত প্রতিবাদ সভায় সভাপতিত্ব করেন বিদ্যালয় পরিচালনা পরিষদের সভাপতি আলহাজ্ব মোঃ ইলিয়াছ তালুকদার। হাটহাজারী উপজেলা শিক্ষক সংগ্রাম কমিটির সদস্য মো. হোসেন এর সঞ্চালনায় সভায় দোষী ব্যক্তিদের অনতিবিলম্বে গ্রেফতার ও শাস্তির দাবীতে বক্তব্য রাখেন বিদ্যালয় প্রতিষ্ঠাতা সদস্য ডা: গোবিন্দ প্রসাদ মহাজন, সংগ্রাম কমিটির যুগ্ম-আহবায়ক হাটহাজারী পার্বতী মডেল উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক মো. জসিম উদ্দীন, সংগ্রাম কমিটির যুগ্ম-আহবায়ক মো. রফিক, সংগ্রাম কমিটির সদস্য শিমুল মহাজন, শিক্ষানুরাগী সদস্য মো. জাহাঙ্গীর আলম, অভিভাবক সদস্য মো. গিয়াস, হাটহাজারী পার্বতী মডেল উচ্চ বিদ্যালয়ের সাবেক শিক্ষক সাংবাদিক নেতা আতাউর রহমান মিয়া, বিদ্যালয়ের সহকারী প্রধান শিক্ষিকা খাদিজা খাতুন। এছাড়া সভায় উপস্থিত ছিলেন বিদ্যালয় পরিচালনা পরিষদের সম্মানিত সদস্যবৃন্দ, অত্র প্রতিষ্ঠানের শিক্ষক পরিষদ, বিভিন্ন বিদ্যালয়ের প্রতিষ্ঠান প্রধান, অভিভাবকবৃন্দ, ছাত্র ফোরাম ও অত্র প্রতিষ্ঠানের শিক্ষার্থীরা।
প্রতিবাদ সভায় বক্তারা বলেন, দোষীদের অনতিবিলম্বে গ্রেফতার করা না হলে হাটহাজারীর সকল শিক্ষার্থী, শিক্ষা প্রতিষ্ঠান শিক্ষক সংগ্রাম কমিটির নেতৃবৃন্দকে সাথে নিয়ে বৃহত্তর আন্দোলন গড়ে তোলা হবে।
প্রসঙ্গত, এসএসসি নির্বাচনী পরীক্ষায় অকৃতকার্য শিক্ষার্থীর ফরম পূরণের অন্যায় আবদার না রাখায় গত ১৬ নভেম্বর হাটহাজারী গার্লস স্কুল এন্ড কলেজের অধ্যক্ষ আলী আহম্মদকে চলন্ত বাস থেকে নামিয়ে প্রহৃত ও লাঞ্ছিত করে উপজেলা ছাত্রলীগের যুগ্ন-সাধারণ সম্পাদক কাজী মো. শাওন মাহমুদ ও তার সহযোগীরা। এ ঘটনায় হাটহাজারী উপজেলার শিক্ষক, শিক্ষার্থী ও অভিভাবক মহলে তীব্র ক্ষোভের সৃষ্টি হয়। উপজেলা সর্বত্র এমন ন্যাক্কারজনক ঘটনার তীব্র নিন্দা জানায় সচেতন মহল।
এদিকে গত বুধবার রাতে অধ্যক্ষ বাদী হয়ে থানায় মামলা দায়েরের পরও এখনও পর্যন্ত অভিযুক্তদের গ্রেফতার করতে পারেনি পুলিশ। তবে ঘটনার সাথে জড়িত ছাত্রলীগ নেতাকে আটকের জন্য পুলিশি অভিযান অব্যাহত রেখেছে বলে দাবী করেন হাটহাজারী মডেল থানার অফিসার ইনচার্জ বেলাল উদ্দিন জাহাংগীর। তিনি গণমাধ্যম কর্মীদের আশ্বস্ত করে বলেন, অপরাধীকে অবশ্যই শাস্তি আওতায় আনা হবে।

Top