সাংবাদিকদের হুংকার, মামলা করার আগেই বদলী

badli.jpg

আতিকুর রহমান মানিক, কক্সবাজার:
সাংবাদিকদের বিরূদ্ধে মামলা করার আগেই শাস্তিমূলক বদলীর শিকার হলেন কক্সবাজার সদরের ঈদগাঁওয়ের বহুল সমালোচিত দূর্নীতিবাজ বনবিট কর্মকর্তা আবু তাহের। তার বদলী সংক্রান্ত অফিস আদেশ ভোমরিয়া ঘোনা বিট কার্যালয়ে প্রেরন করা হয়েছে ও এ আদেশমূলে তাকে চট্রগ্রামস্থ সিএসএফ কার্যালয়ে সংযুক্ত করা হয়েছে বলে বন বিভাগীয় সূত্র নিশ্চিত করেছে। তার বহুবিধ অনিয়ম-দূর্নীতির তথ্যবহুল প্রতিবেদন প্রকাশ করায় ইতিপূর্বে সাংবাদিকদের বিরূদ্ধে মামলা করার হুংকার দিয়েছিলেন আবু তাহের। কিন্তু তার আগেই তাকে বদলী হয়ে ঈদগাঁও ছাড়তে হল।
উপরোক্ত বিট কর্মকর্তা আবু তাহের কক্সবাজার উত্তর বনবিভাগের ভোমরিয়া ঘোনা রেঞ্জ অফিসে যোগদানের পর থেকেই বহুমাত্রিক অনিয়ম-দূর্নীতিতে জড়িয়ে পড়ে একের পর এক ঘটনার জন্ম দেন। গাছ চোরদের সাথে সখ্যতা স্হাপন করে সরকারী বনজ সম্পদ উজাড়, কাঠপাচার, বনভূমি দখলে ইন্ধন, নারী কেলেংকারী ও ঘুষ বানিজ্যসহ বিভিন্ন অভিযোগ উঠে তার বিরূদ্ধে। এ নিয়ে বিভিন্ন অনলাইন ও পত্রিকায় একাধিক সচিত্র প্রতিবেদন হয়। সর্বশেষ গত ২৩ নভেম্বর ঈদগাঁহ দরগাহ পাড়া এলাকা থেকে পাহাড়ের মাটি কাটার সময় স্থানীয় প্রভাবশালী এক নেতার ডাম্পার গাড়ী সহ প্রয়োজনীয় সরঞ্জাম জব্দ করার পর মোটা অংকের দফারফার মাধ্যমে ছেড়ে দেন আবু তাহের।
পরদিন এ সংক্রান্ত তথ্যবহুল সচিত্র প্রতিবেদন কক্সবাজার নিউজ ডটকম (সিবিএন) ও বিভিন্ন পত্রিকায় প্রকাশিত হলে সর্বত্র তোলপাড় সৃষ্টি হয়। এতে ক্ষিপ্ত হয়ে সাংবাদিকদের “দেখে নেয়ার” ও মামলায় জড়ানোর হুমকি দিয়ে গালিগালাজ করেন বিট কর্মকর্তা আবু তাহের। এ বিষয়ে সাংবাদিকরা বন প্রশাসনের উর্ধতন কর্তপক্ষের দৃষ্টি আকর্ষন করলে অবশেষে টনক নড়ে বন বিভাগের। অবশেষে ২৪ নভেম্বর তাকে চট্টগ্রামে বদলী করা হয় বলে জানান কক্সবাজার উত্তর বন বিভাগের বিভাগীয় বন কর্মকর্তা কেরামত আলী। বদলী হওয়া বিট কর্মকর্তা আবু তাহেরের সাথে শনিবার বিকালে যোগাযোগ করা হলে তিনি বদলীর বিষয়টি নিশ্চিত করেন ও নতুন কর্মস্হলে যোগ দিতে চট্টগ্রাম পৌঁছেছেন বলে জানান।

Top