লামায় বিজিবি ক্যাম্প বহালের দাবিতে স্থানীয়দের মানববন্ধন

Lama-Manobbandan-Photo.jpg

মো. নুরুল করিম আরমান, লামা:
বান্দরবানের লামা উপজেলার ফাঁসিয়াখালী ইউনিয়নের বাংলাদেশ বর্ডার গার্ডের (বিজিবি) ত্রিশডেবা বিওপি ক্যাম্প বহালের দাবিতে মানববন্ধন করেছে স্থানীয় ব্যবসায়ী, ক্ষুদ্র নৃ-গোষ্ঠি ও বাঙ্গালীরা। মঙ্গলবার বিকাল ৩টার দিকে উপজেলার ফাঁসিয়াখালী ইউনিয়নের বনপুর বাজারে এ মানববন্ধন অনুষ্ঠিত হয়। মানববন্ধনে স্থানীয় পাঁচ শতাধিক নারী-পুরুষ স্বতস্ফুর্তভাবে অংশ গ্রহন করেন।
৩১ বিজিবি নাইক্ষ্যংছড়ি জোনের অধিনস্থ ত্রিশডেবা বিওপি ক্যাম্পটি সরকারী সিদ্ধান্ত মতে প্রত্যাহার করে নিয়ে যাওয়ার প্রক্রিয়া প্রায়ই চুড়ান্ত হয়েছে, এতে স্থানীয়রা নিরাপত্তাহীনতায় ভূগবেন- এমন আশঙ্কায় ক্যাম্পটির আশপাশের কয়েক গ্রামের মানুষ প্রত্যাহার আদেশ বাতিলের দাবিতে মানবন্ধনের আয়োজন করে। ক্যাম্প বহালের দাবি তুলে মানববন্ধনে বক্তব্য দেন, বনফুর বাজারের ব্যবসায়ি রিংকু বাবু ধর, মো. আবুল কালাম, লুৎফুর রহমান ও মির আহমদ মিলন।

স্থানীয়রা জানায়, এলাকার নিরাপত্তার স্বার্থে ১৯৮৩-৮৪ সালের দিকে ত্রিশডেবা বিওপি বিজিবি ক্যাম্পটি স্থাপন করা হয়। ক্যাম্পটির আশপাশে ৪১টি বাঙ্গালি পাড়া ও ২৫টি ক্ষুদ্র নৃ-গোষ্ঠি পাড়া রয়েছে। ক্যাম্পটি স্থাপনের পর থেকে এলাকাবাসী নিরাপত্তার সাথে জীবন যাপন করে আসছে। এই মুহুর্তে ক্যাম্পটি প্রত্যাহার করে নিলে এলাকার প্রায় ১৬ হাজার বাঙ্গালি ও ৭ হাজার ক্ষুদ্র নৃ-গোষ্ঠি সম্প্রদায়কে চরম নিরাপত্তাহীনতায় ভূগতে হবে।
মানববন্ধনে বক্তারা বলেন, ক্যাম্পটি তুলে নিলে এলাকায় চাদাঁবাজি, সন্ত্রাসী কর্মকান্ড, অপহরণ, খুন, ডাকাতি ও ছিনতাই বেড়ে যাবে। সন্ধ্যার পর এই এলাকাটি দুষ্কৃতিকারীদের অভয়রাণ্যে পরিণত হবে। এলাকাটি দূর্গম পাহাড়ি এলাকা হওয়ায় সন্ত্রাসী কার্যক্রম প্রতিহত করতে প্রশাসনকে হিমশিম খেতে হবে। তাই বিজিবি ক্যাম্পটি বহাল রাখার দাবি জানান তারা।
ফাঁসিয়াখালী ইউপি চেয়ারম্যান মো. জাকের হোসেন মজুমদার বলেন, এলাকার নিরাপত্তার স্বার্থে ক্যাম্পটি রাখা অতীব জরুরী। জনসাধারণের জানমালের কথা চিন্তা করে বিজিবি ত্রিশডেবা বিওপি ক্যাম্পটি রাখতে সরকার ও বিজিবির কর্তৃপক্ষকে অনুরোধ জানান তিনি।
এ বিষয়ে নাইক্ষ্যংছড়ি ৩১ বিজিবি’র অধিনায়ক লে. কর্ণেল আনোয়ারুল আজিম জানান, ক্যাম্প প্রত্যাহারের বিষয়টি উর্দ্ধতন কর্তৃপক্ষের সিদ্ধান্ত। আমাদেরকে যখন যে নির্দেশ প্রদান করে আমরা তা পালন করি।

Top