মাদ্রাসা ও এতিমের কল্যাণে সকলের এগিয়ে আসা উচিত

IMIC.jpg

সংবাদদাতা:
ইমাম মুসলিম (রহ.) ইসলামিক সেন্টারে অভিভাবক ও হিতাকাঙ্খী সমাবেশের ৩য় পর্ব অনুষ্ঠিত হয়েছে।
শনিবার বিকেলে ইমাম রুখারী (রহ.) জামে মসজিদের দ্বিতীয় তলায় অনুষ্ঠিত সমাবেশে স্বাগত বক্তব্য রাখেন মাদ্রাসার নির্বাহী পরিচাল ক্বারী মাওলানা মোহাম্মদ ওসমান।
মাদ্রাসার প্রতিষ্ঠাতা পরিচালক হাফেজ মাওলানা ছালাহুল ইসলামের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে বক্তারা বলেন, কক্সবাজারের এমন একটি অনাবাদী জায়গায় ইমাম মুসলিম (রহ.) ইসলামিক সেন্টার প্রতিষ্ঠিত হয়েছে-যেখানে এক সময় ভয়ে মানুষ আসত না। পুরো এলাকা জঙ্গল ছিল। শুধু তা-ই নয়; এখানে দুষ্কৃতিকারীদের আস্তানা ছিল। মাদ্রাসাটি হওয়ার পর এখানে আলোর প্রদ্বীপ জ্বলেছে। শিক্ষার দ্বীপ্তমান ছড়িয়ে পড়েছে এলাকা সহ কক্সবাজারের প্রত্যন্ত অঞ্চলে।
এছাড়া কক্সবাজারের সেরা একটি মসজিদ এখানে প্রতিষ্ঠিত হওয়ায় মানুষের মাঝে আল্লাহর ভয় ও রাসূলের মহব্বত সৃষ্টি হয়েছে।
মাদ্রাসাটি হওয়ায় স্থানীয়দের চিন্তাধারায় উন্নতি সাধিত হয়েছে দাবী করে বক্তারা বলেন, ঈমানদার লোকজন এখন মসজিদ আসছেন-নামায পড়ছেন।
অভিভাবক ও হিতাকাঙ্খীদের উদ্দেশ্যে বক্তারা বলেন, ইতোমধ্যে আপনারা যেভাবে মাদ্রাসার সার্বিক বিষয়ে সহযোগিতা করে মাদ্রাসাকে এ পর্যন্ত নিয়ে এসেছেন। এর ধারাবাহিকতা বজায় রাখতে হবে। মাদ্রাসাতে আরও উন্নত করতে হবে। এক্ষেত্রে আপনাদের অংশগ্রহণ আরও বেশি বেশি প্রয়োজন। তাই সপ্তাহে, মাসে অথবা বাৎসরিকভাবে আপনাদের কিছু সহযোগিতা মাদ্রাসাকে অনেক দূর এগিয়ে নিয়ে যাবে।
অনুষ্ঠানে পবিত্র কুরআন তেলাওয়াত করেন মাদ্রাসার ৫ম শ্রেণীর ছাত্রী আসফিয়া, ইসলামী সঙ্গীত পরিবেশন করেন তামান্না ও রাশেদার দল। সমাবেশে ইংরেজীতে বক্তব্য রাখেন মাদ্রাসার ৫ম শ্রেণীর ছাত্র মোহাম্মদ নাছের।
অনুষ্ঠানে মেহমানদের মাঝে বক্তব্য রাখেন, বিজিবি ক্যাম্পস্থ বুড়িছড়া জামে মসজিদের ইমাম ও খতিব মাওলানা আবদুস সালাম, সুরতিয়া সিনিয়র মাদ্রাসার ইংরেজী বিভাগের শিক্ষক আহসান হাবিব, ইমাম মুসলিমের শিক্ষা পরিচালক মুফতী আলতাফ হোসাইন, বায়তুশ শরফ জব্বারিয়া একাডেমী শিক্ষক সিনিয়র শিক্ষক সুলতান আহমদ ও ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ কক্সবাজার জেলা শাখার প্রচার সম্পাদক জুলফিকার আহমদ ভুট্টো প্রমুখ।
সমাবেশে সমাপনি বক্তব্য রাখেন-মাদ্রাসার তাফসীর বিভাগের প্রধান ও হাজিপাড়া জামে মসজিদের খতিব মাওলানা তাহের সাঈদ।

Top