বিজিবি-বিজিপি বৈঠক: মিয়ানমারে মুসলমানের উপর নির্যাতনের বিষয়ে আলোচনা হয়নি

BGB-BGP.jpg

ইমাম খাইর, সিবিএন:
বাংলাদেশ-মায়ানমার সীমান্তে ইয়াবা ও মাদকদ্রব্য চোরাচালান, তথ্য আদান প্রদান সংক্রান্তে আলোচনার মধ্য দিয়ে সমাপ্ত হলো বর্ডার গার্ড বাংলাদেশ (বিজিবি) এবং বর্ডার গার্ড পুলিশ (বিজিপি) মায়ানমার এর মধ্যকার পতাকা বৈঠক।
বুধবার (২৩ নভেম্বর) বিকালে সমুদ্র সৈকত সংলগ্ন বিজিবি রেষ্ট হাউজ সম্মেলন কক্ষে এ সভা হয়।
বৈঠকে বর্ডার গার্ড বাংলাদেশ এর পক্ষ থেকে নিয়মিত সীমান্তে অধিনায়ক পর্যায়ে সৌজন্য সাক্ষাত, যৌথ টহল, বর্ডার লিয়াজো অফিস, বন্ধুত্বমূলক খেলাধূলার আয়োজন করা এবং অন্যান্য দ্বিপাক্ষিক বিষয়ে আলোচনা করা হয়।
উভয়পক্ষ পরস্পরকে সীমান্ত সংশ্লিষ্ট বিষয়ে সর্বাতœক সহযোগিতা করার ব্যাপারে সম্মত হন।
এছাড়া মায়ানমারের সাথে বাংলাদেশের দায়িত্বপূর্ণ সীমান্ত এলাকায় যেকোন সমস্যা সমাধানে উভয় কমান্ডার বন্ধুত্বপূর্ণ আলোচনার মাধ্যমে সমস্যা সমাধানে পদক্ষেপ গ্রহণে একমত হন।
তবে, দুই দেশের সীমান্ত রক্ষাকারী বহিনীর মধ্যকার গুরুত্বপূর্ণ এ সভায় অনেক কিছু নিয়ে কথা হলেও সাম্প্রতিক সময়কালের বিশ্বব্যাপী আলোচিত মিয়ানমারে মুসলমানের উপর নির্যাতন সংক্রান্ত কোন ইস্যু স্থান পায়নি।
বৈঠকে বাংলাদেশের পক্ষে ২৭ সদস্যের বর্ডার গার্ড বাংলাদেশ দলের নেতৃত্ব দেন চট্টগ্রাম দক্ষিণ পূর্ব রিজিয়নের অতিরিক্ত মহাপরিচালক (রিজিয়ন কমান্ডার) ব্রিগেডিয়ার জেনারেল খোন্দকার ফরিদ হাসান।
মায়ানমার পক্ষে ৩১ সদস্যের নেতৃত্ব দেন বর্ডার গার্ড পুলিশ কমান্ডিং অফিস, মংডু’র এক নম্বর কমান্ডার পুলিশ ব্রিগেডিয়ার জেনারেল তু সান লিন।
বৈঠকে বাংলাদেশ দলে আরো উপস্থিত ছিলেন ব্রিগেডিয়ার জেনারেল সেলিম মাহমুদ চৌধুরী, কর্ণেল এম এম আনিসুর রহমান, কর্ণেল মোঃ হাবিবুর রহমান, লেঃ কর্ণেল মোঃ তৌহিদুল ইসলাম, লেঃ কর্ণেল মোঃ আনোয়ারুল আযীম, লেঃ কর্ণেল গোলাম মনজুর সিদ্দিকী, লেঃ কর্ণেল ইমরান উল্লাহ সরকার, লেঃ কর্ণেল মোঃ আবুজার আল জাহিদ, লেঃ কর্ণেল এ আর এম নাসিরউদ্দীন একরাম, মেজর মোঃ আবদুস সালাম, মেজর মাহবুব সাবের, মেজর মেহেদী হাসান রবিন।
বিজিবি কক্সবাজার সেক্টর সদর দপ্তরের অতিরিক্ত মহাপরিচালক (অপারেশন) মো. আবদুস সালাম এসব তথ্য নিশ্চিত করে বলেন, দুই দেশের প্রতিনিধিদের মধ্যকার সাক্ষাৎটি অত্যন্ত ফলপ্রসু ও সৌহার্দ্যপূর্ণ পরিবেশের মাধ্যমে সমাপ্ত হয়।

Top