বাহারছড়া বৌদ্ধ বিহারে কঠিন চীবর দান অনুষ্ঠিত

bodda.jpg

শ্যামল বড়ুয়া সৈকত :

প্রতি বছরের ন্যায় এ বছর ও যথাযোগ্য মর্যাদায় কক্সবাজারের বাহারছড়া বৌদ্ধ বিহারে গত ৫ নভেম্বর রোজ-শনিবার, দিন ব্যাপী ধর্মীয় কর্মসূচীর মাধ্যমে কঠিন চীবর দান অনুষ্ঠান সম্পন্ন হয়। দিনব্যাপী অনুষ্ঠান মালার শুরুতে প্রভাত ফেরী, জাতীয় ও ধর্মীয় পতাকা উত্তোলন, সংঘদান, ভিক্ষুসংঘের মধ্যহ্ন ভোজন এবং উদ্বোধক বাবু নিরঞ্জন বড়–য়ার উদ্বোধনীর মাধ্যমে কঠিন চীবর দান অনুষ্ঠানে কার্যক্রম শুরু হয়। অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন বাংলাদেশ ভিক্ষু মহাসভার উপ-সংঘরাজ মায়ানমার সরকার কর্তৃক অ¹মহাসদ্দন্মজোতিকাধজ, উপাধিপ্রাপ্ত গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকার কর্তৃক ২১শে পদক প্রাপ্ত, আন্তর্জাতিক খ্যাতি সম্পন্ন ধর্মীয় গুরু এবং বহু গ্রন্থ প্রণেতা, রামু কেন্দ্রীয় সীমা বিহারের অধ্যক্ষ ভদন্ত পন্ডিত সত্যপ্রিয় মহাথের। ধর্ম দেশক ছিলেন ভদন্ত সারিমিত্র মহাথের, প্রজ্ঞামিত্র বন বিহার উত্তর মিঠাছড়ি রামু ভদন্ত কুশলায়ন মহাথের পরিচালক জ্ঞানসেন বৌদ্ধ ভিক্ষু-শ্রামন প্রশিক্ষন ও সাধনা কেন্দ্র, ভদন্ত জ্ঞানলংকার মহাথের অধ্যক্ষ বাহারছড়া বৌদ্ধ বিহার কক্সবাজার, ভদন্ত জ্ঞানপ্রিয়থের উঃ কুশল্ল্যা বৌদ্ধ বিহার কক্সবাজার, ভদন্ত কে.শ্রী জ্যোতিসেন থের পরিচালক ঐতিহাসিক রামকুট বনাশ্রম, মহাতীর্থ মহাবিহার রামু, ভদন্ত প্রজ্ঞাপাল ভিক্ষু অগ্র মহাপন্ডিত প্রজ্ঞালোক বৌদ্ধ বিহার ধ্যান কেন্দ্র জেল গেইট বড়–য়া পাড়া, ঝিলংজা ধর্মাংকুর বৌদ্ধ বিহারের বিহার অধ্যক্ষ সুগত প্রিয় ভিক্ষু। আরও উপস্থিত ছিলেন ভদন্ত প্রজ্ঞানন্দ ভিক্ষু সহকারী পরিচালক রামু কেন্দ্রীয় সীমা বিহার রামু, সম্পাদক আমাদের রামু ডটকম ও আমাদের রামু। উদ্বোধনী সংগীত পরিবেশন করেন বাবু প্রবীর বড়–য়া ও তার দল, সভাপতি রামু কেন্দ্রীয় বৌদ্ধ ঐক্য কল্যাণ পরিষদ, স্বাগত বক্তব্য প্রদান করেন বাহারছড়া বৌদ্ধ বিহার পরিচালনা ও সমাজ সংরক্ষণ কমিটির সভাপতি এডঃ সুনীল কুমার বড়–য়া, বিশেষ আলোচকবৃন্দ হিসেবে বক্তব্য দেন বাবু বাদল বড়–য়া, সভাপতি প্রাক্তন সাতকানিয়া লোহাগাড়া বৌদ্ধ ঐক্য পরিষদ, বাবু বোধিমিত্র বড়–য়া অবসরপ্রাপ্ত শিক্ষক। শুভেচ্ছা বক্তব্য দেন বাহারছড়া বৌদ্ধ বিহার পরিচালনা কমিটির সাধারণ সম্পাদক সুবেদার মেজর অবঃ রবীন্দ্রনাথ বড়–য়া, শ্রী জ্যোতি সুমন ভিক্ষু, শ্যামল বড়–য়া সৈকত ও রাজু বড়–য়ার সঞ্চালনায় বক্তব্য প্রদান করেন ডাঃ অনিল বড়–য়া, কালীধন বড়–য়া, বিকাশ বড়–য়া, অর্থ সম্পাদক ভুলু বড়–য়া, তাপস বড়–য়া, মুন্না বড়–য়া, প্রকৌ: সুমন বড়–য়া, ডাঃ রঞ্জন বড়–য়া, প্রসেনজিৎ বড়–য়া, সনিত্য বড়–য়া, সমীর দাশ, রিপন বড়–য়া, দীপঙ্কর পাল, দিপায়ন বড়–য়া বাপ্পা। সার্বিক সহযোগিতায় অমল বড়–য়া, মৃদুল বড়–য়া, ইল্লু বড়–য়া, লিমন বড়–য়া, অভি বড়–য়া, অভিজিত বড়–য়া পাপ্পা, পান্থ বড়–য়া, জয় বড়–য়া প্রমুখ। দিনব্যাপী অনুষ্ঠান মালায় ভিক্ষু শ্রমণ, দায়ক-দায়িকা ও বাহারছড়া বৌদ্ধ বিহারের গণ্যমান্য ব্যক্তিবর্গ উপস্থিত ছিলেন। সদ্ধর্ম ভাষণে ভিক্ষুগণ বলেন কুসংস্কার ও কুমন্ডুপামুক্ত নৈতিক মূল্যবোধ সম্পন্ন মানবিক সমাজ বির্নিমাণে আলোকিত মানুষ দরকার। তাই বৌদ্ধিক চেতনা ও মানবিক মূল্যবোধ উদ্ভুদ্ধ হয়ে আলোকিত সমাজ বির্নিমাণে সবাইকে যার যার অবস্থান থেকে কাজ করে যেতে হবে। সম্মানিত অতিথিবর্গ বলেন বৌদ্ধ সম্প্রদায়ের প্রাচীনকালের নান্দনিক স্থাপত্য কলা কক্সবাজার সমৃদ্ধ পর্যটনের ইতিহাসের এক বিশেষ অধ্যায়। এ ইতিহাস আড়াই হাজার বছর ব্যাপী বি¯তৃত। তা বাস্তবায়নে সহযোগিতার মনোভাব নিয়ে এগিয়ে আসবেন বলে আশা প্রকাশ করেন। সর্দ্ধম সভা শেষে বিশ্ব শান্তি কামনায় সমবেত প্রার্থনা ও ফানুস বাতি উড়ানো হয়।

Top