দেশবাসীর কাছে দোয়া চাইলেন খাদিজা

khadiza.jpg

সিলেটে ছাত্রলীগের বহিষ্কৃত এক নেতার হামলার শিকার কলেজছাত্রী খাদিজা আক্তার নার্গিসের অবস্থা আগের চেয়ে ভালো। দ্রুত সুস্থ হয়ে স্বাভাবিক জীবনে ফিরতে সবার কাছে দোয়া চেয়েছেন তিনি।

খাদিজা এখন নিজের হাতে খেতে পারেন, যেকোনো লেখা পড়তে পারেন, কারো সাহায্য নিয়ে ধরে ধরে হাঁটতেও পারেন। দ্রুতই তিনি বাড়ি ফিরতে পারবেন বলে জানিয়েছে স্কয়ার হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ।

খাদিজা আক্তার নার্গিসের শারীরিক অবস্থার সর্বশেষ পরিস্থিতি জানাতে আজ শনিবার স্কয়ার হাসপাতালে এক সংবাদ সম্মেলনের আয়োজন করা হয়। এই সংবাদ সম্মেলনে সবার কাছে দোয়া চান খাদিজা।

এর আগেও কয়েকবার বিষয়টি নিয়ে সংবাদ সম্মেলন করা হলেও এবার শারীরিক অবস্থার খবর জানাতে নিজেই হাজির হন খাদিজা।

সংবাদ সম্মেলনে উপস্থিত সাংবাদিকদের উদ্দেশে খাদিজা বলেন, ‘দেশবাসী সবাইকে আমার পক্ষ থেকে ধন্যবাদ জানাই। আপনারা সবাই আমার জন্য অনেক দোয়া করেছেন। আপনাদের দোয়ায় আমি সুস্থ আছি। ভালো আছি। আপনারা আমার জন্য আরো দোয়া করবেন। আমি যাতে সম্পূর্ণ সুস্থ হই।’

স্কয়ার হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ জানায়, ঘটনার পর অস্ত্রোপচার আর নিবিড় পরিচর্যার পর খাদিজা এখন অনেকটাই সুস্থ। দ্রুত তাঁকে হাসপাতল থেকে ছেড়ে দেওয়া হবে।

স্কয়ার হাসপাতালের মেডিকেল সার্ভিসেস বিভাগের পরিচালক ডা. মির্জা নাজিম উদ্দিন জানান, মেডিকেল বোর্ডের সিদ্ধান্ত অনুযায়ী যেহেতু খাদিজার রিহ্যাব ফিজিওথেরাপি দরকার, সে জন্য তাঁকে স্কয়ার হাসপাতাল থেকে ছাড়পত্র দিয়ে ভালো কোথাও থেরাপি নেওয়ার সুপারিশ করা হয়েছে।

৩ অক্টোবর সিলেট সরকারি মহিলা কলেজের ছাত্রী খাদিজা বেগম নার্গিসকে কুপিয়ে আহত করে শাহজালাল বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের অর্থনীতি বিভাগের শেষ বর্ষের ছাত্র ও বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্রলীগের সহসম্পাদক বদরুল আলম। এই ঘটনা প্রকাশের পর ছাত্রলীগ ও বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ বদরুলকে বহিষ্কার করে।

Top