টেকনাফে নারীর শ্লীলতাহানীর অপচেষ্টা

ovijog.jpg

টেকনাফ সংবাদদাতা:
টেকনাফ উপজেলার হোয়াইক্যং কাটাখালী এলাকার এক নারীকে শ্লীলতাহানি করার গুরুতর অভিযোগ পাওয়া গেছে। এ ব্যাপারে স্থানীয়ভাবে সালিশের মাধ্যমে সমঝোতার প্রক্রিয়াধীন রয়েছে।
২৫ নভেম্বর বিকেল সাড়ে ৫ টার দিকে ওই এলাকার হোছন আলীর স্ত্রী ফাতেমা খাতুন প্রতিদিনের মত বাড়ি ঘরের কাজ করছিল। এসময় লোকজনের অনুপস্থিতিতেই পাশ্ববর্তী এলাকার মৃত্যু হোসাইন আলীর ছেলে মোহাম্মদ আমিন তাকে শ্লীলতাহানির চেষ্টা করে। উভয় জনের হাতাহাতিতে তিন সন্তানের জননী ফাতেমা খাতুন অজ্ঞান হয়ে পড়ে। আত্নীয় স্বজন তাকে উদ্ধার করে স্থানীয় পল্লী চিকিৎসক আবুল হোসনের কাছে চিকিৎসা নেন। প্রতিবেশী আবুতাহের বলেন, ‘মোঃ আমিন এ নারীকে নিয়মিত উত্ত্যক্ত করতো, এর ধারাবাহিকতায় এ জঘন্য কাজ করেছে।
ফাতেমা খাতুন বলেন, একা বাড়িতে কাজ করার বিষয়টি জেনে, সে বাড়িতে ঢুকে শ্লীলতাহানির চেষ্টা করে। এতে তাকে বাঁধা দেয়া হলে, তার মারধরে অজ্ঞান হয়ে যায়। স্থানীয়ভাবে সমাধান না হলে মামলা করা হবে বলেও জানান তিনি। মোঃ আমিনের বড় ভাই রশিদ আমিন জানান, বিষয়টি সম্পূর্ণ মিথ্যা। নারীটি আমার ভাইয়ের বাগান হতে কলা ছুরি করতে গেলে তাদের মধ্যে বাকবিতন্ডা হয়েছে মাত্র। এ নিয়ে একটি দল আমাদের হয়রানি করার চেষ্টা চালাচ্ছে।

Top