জেলা পরিষদ নির্বাচন: ২জন চেয়ারম্যানসহ ৯৪জন প্রার্থীর মনোনয়ন দাখিল

kajol.jpg

জেলা নির্বাচন কর্মকর্তার নিকট মনোনয়নপত্র জমা দিচ্ছেন সংরক্ষিত ৫ আসনের প্রার্থী আশরাফ জাহান কাজল। এ সময় জেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি এডভোকেট সিরাজুল মোস্তফা, সাধারণ সম্পাদক মুজিবুর রহমান, আবদুর রহমান বদি এমপি, আশেক উল্লাহ রফিক এমপি উপস্থিত ছিলেন।

অজিত কুমার দাশ হিমু, কক্সবাজার:
আগামী ২৮ ডিসেম্বর অনুষ্ঠিতব্য জেলা পরিষদ নির্বাচনে মনোনয়নপত্র জমা দেওয়ার শেষ দিন বৃহস্পতিবার বিকেল পর্যন্ত কক্সবাজার জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান পদে- ২জন, সাধারণ সদস্য পদে ৭২ জন ও সংরক্ষিত নারী সদস্য পদে ২০ জন সহ মোট ৯৪জন প্রার্থী তাদের মনোনয়নপত্র জমা দিয়েছেন।

এর মধ্যে চেয়ারম্যান পদে আওয়ামী লীগ মনোনীত একমাত্র প্রার্থী ও বর্তমান কক্সবাজার জেলা পরিষদ প্রশাসক মোস্তাক আহমদ চৌধুরী ও জাতীয় পার্টি (জেপি) কেন্দ্রীয় সদস্য সালাহ উদ্দিন মাহমুদ মনোনয়নপত্র জমা দেন।

এ ছাড়া ১৫টি সাধারণ সদস্য পদে যথাক্রমে- ১নং ওয়ার্ডে মো: জাহেদুল ইসলাম ফরহাদ, মনোয়ারুল ইসলাম চৌধুরী (মুকুল), আহামদ উল্লাহ, মিজানুর রহমান, ২নং ওয়ার্ডে মুঃ কামাল উদ্দীন, মোহাম্মদ ইকবাল চৌধুরী, মোঃ রুহুল আমিন, লুৎফুর রহমান, জাফর আলম, ৩নং ওয়ার্ডে মোস্তফা আনোয়ার, আনোয়ার পাশা চৌধুরী, সিরাজ মিয়া, মুহাম্মদ আইয়ুবুর রহমান, শহিদুল ইসলাম মুন্না, আজিজুল হক (আজিজ), ৪নং ওয়ার্ডে রিয়াজ খান রাজু, জাহাংঙ্গীর আলম, মোঃ জাহাঙ্গীর আলম, এস,এম,গিয়াস উদ্দিন, এ,টি,এম জায়েদ মোর্শেদ, মোঃ ইকবাল, আবুল কাশেম, মোঃ তারেক ছিদ্দিকী, মেহেদী হাসান, আবু হেনা মোস্তফা কামাল, ৫নং ওয়ার্ডে জহির হোছাইন, কমরুউদ্দিন আহমদ চৌধুরী, মোহাম্মদ বদরুদ্দোজা, এ.টি.এম.জিয়াউদ্দীন চৌধুরী জিয়া, ফিরোজ আহমদ চৌধুরী, এস.এম. জাহাঙ্গীর আলম বুলবুল, মাহবুব রহমান, ৬নং ওয়ার্ডে এম আজিজুর রহিম, মোঃ আবু তৈয়ব, আকতার আহমদ, নুরুল আমিন চৌধুরী, ৭নং ওয়ার্ডে জাহেদুল ইসলাম, মোঃ জাহাঙ্গীর আলম, আবদুর রহিম, মোজাফ্ফর হোসেন পটু, খলিলুর রহমান, মোহাম্মদ ওয়ালিদ, ৮নং ওয়ার্ডে মোঃ শাহনেওয়াজ তালুকদার, মোক্তার আহাম্মদ চৌধুরী, আ.ন.ম. আমিনুল এহেছান, মোহাম্মদ ওমর ফারুক, সোলতান আহামদ, ৯নং ওয়ার্ডে মোঃ আরিফুল ইসলাম, মোঃ জুনায়েদ কবির, সোহেল জাহান চৌধুরী, মিজানুল হক, আজিজুর রহমান, মঞ্জুরুল হক চৌধুরী, ১০নং ওয়ার্ডে মোঃ নুরুজ্জামান, উজ্জল কর, শামসুল আলম, রফিক উদ্দীন, মাহমুদুল করিম, মোঃ রুহুল আমিন, ১১ নং ওয়ার্ডে শামশুল আলম মন্ডল, পলক বড়–য়া, ১২নং ওয়ার্ডে মুহাম্মদ মুহিববুল্লাহ, শামসুল আলম, ১৩ নং ওয়ার্ডে নুরুল হক, আবদুর রহিম, রাহামত উল্লাহ, ১৪ নং ওয়ার্ডে হুমায়ুন কবির চৌধুরী, মোঃ খাইরুল আমিন, খোরশিদা বেগম, ১৫নং ওয়ার্ডে মোহাম্মদ শফিক মিয়া, জহির হোসেন। তাছাড়া ০৫টি সংরক্ষিত নারী সদস্য পদে যথাক্রমে- ১নং ওয়ার্ডে মশরফা জান্নাত, শিরীন ফরজানা, প্রীতি কণা শর্মা, ২নং ওয়ার্ডে মোছাম্মদ উম্মে কুলসুম, আসমা উল হোসনা, সৈয়দা নিঘাত আমিন, মর্জিনা বেগম, জাহানারা পারভীন, ৩নং ওয়ার্ডে শাহানা বেগম, রেহেনা খানম, ফিরোজা বেগম, লুৎফুন্নাহার, আনোয়ারা বেগম, ৪নং ওয়ার্ডে হামিদা তাহের, রোমেনা আক্তার, শাহেনা আকতার, তাহমিনা চৌধুরী লুনা, ৫নং ওয়ার্ডে স¤œজিদা বেগম, আশরাফ জাহান কাজল, আশরাফুন নেছা রিপা মনোনয়নপত্র জমা দিয়েছেন।

জেলা নির্বাচন অফিসার মোজাম্মেল হোছাইন এ তথ্য নিশ্চিত করে জানান, আগামী শনিবার ও রবিবার মনোনয়নপত্র যাচাই-বাছাই করা হবে। প্রার্থীতা প্রত্যাহারের শেষ দিন ১১ ডিসেম্বর এবং প্রতীক বরাদ্দ দেওয়া হবে ১২ ডিসেম্বর।

জেলা পরিষদ নির্বাচনে ক্ষমতাসীন দল আওয়ামী লীগ ও জাতীয় পার্টি (জেপি) ছাড়া অন্য কোন দল নির্বাচনে অংশ নেয়নি।

তবে, মঙ্গল পার্টির চেয়ারম্যান কবি জগদীশ বড়–য়া পার্থ চেয়ারম্যান পদে নির্বাচন করার কথা ঘোষনা দিলেও শেষ মুহুর্তে এসে তিনি মনোনয়নপত্র জমা দিতে পারেনি।

এ ব্যাপারে মঙ্গল পার্টির চেয়ারম্যান কবি জগদীশ বড়–য়া পার্থ বলেন, মনোনয়নপত্র জমা দেওয়ার শেষ সময়ের কিছু আগে আমি জেলা নির্বাচন অফিসে গেলেও অজ্ঞাত কারণে আমার মনোনয়নপত্র জেলা নির্বাচন কর্মকর্তা গ্রহন করেননি।

একই অভিযোগ একজন সংরক্ষিত নারী সদস্যদের মনোনয়ন প্রত্যাশী মরিয়ম বেগম ও সাধারণ ১১নং ওয়ার্ডে সদস্য পদ প্রত্যাশী মোঃ রাসেলের।

তাদের অভিযোগ অতিরিক্ত সময়ে তাদের সামনে দুইপ্রার্থীর মনোনয়ন পত্র সংগ্রহ করা হলেও তাদের মনোনয়নপত্র সংশ্লিষ্ট নির্বাচন অফিসার ফেরত দিয়েছেন।

তাদের এ অভিযোগ জেলা নির্বাচন অফিসার মোজাম্মেল হোছাইন অস্বীকার করে বলেন, নির্ধারিত সময়ের বাইরে আমরা কারো কাছ থেকে মনোনয়নপত্র গ্রহন করিনি।

Top