জেলা কারাগারে রাইটার মানিক সাহার বেপরোয়া চাদাঁবাজি

coxsbazar-jail-karagar.jpg

বিশেষ প্রতিবেদক : ককসবাজার জেলা কারাগারে কয়েদি (রাইটার) মানিক সাহার বিরুদ্ধে বেপরোয়া চাঁদাবাজির অভিযোগ করেছেন সাধারন কয়েদিরা। জেল সুপারের অজান্তে নিরব চাদাবাজির কারনে সাধারন আসামি ও নতুন করে জেলে যাওয়া আসামিরা চরম সমস্যায় পড়ছে বলে ভুক্তভোগি কয়েকজন জানিয়েছেন।

নাম প্রকাশ না করার শর্তে মানিক সাহার চাদাঁবাজির শিকার এক আসামি জানান, মানিক সাহা প্রকাশ কালা মানিক রাইটার মানিক হিসাবে জেল খানায় পরিচিত । সে এবং কয়েকজন পুরনো কয়েদি মিলে সিন্ডিকেটের মাধ্যমে কৌশলে আসামিদের কাছ থেকে বেপরোয়া চাদাঁ আদায় করছে বলে জানা গেছে। নতুন কয়েদি জেল খানায় আসলে মোটা অংকের টাকা নিয়ে পছন্দসয় ওয়ার্ডে যাওয়ার ব্যবস্থা করেন মানিক সাহা।জেলের অভ্যন্তরে ৬টি ক্যান্টিনের মধ্য থেকে ৫টির কাছ থেকে প্রতি মাসে ৫ হাজার টাকা চাদা নেয় উক্ত মানিক সাহা ও তার সিন্ডিকেট।এছাড়া ও কারা হাসপাতালের রাইটার, নাপিত, ধোপা, প্রতি ওয়ার্ডের মেট থেকে নিয়মিত চাঁদা দিতে হয় বলে জানিয়েছেন একজন কয়েদি। চাদাঁ দিতে অস্বীকার করলে তাকে বেদম প্রহার করে মানিক সাহা ও তার সিন্ডিকেট। জেল সুপার ও কারা কর্তৃপক্ষের সর্ম্পূন অগোচরে কয়েদি ও আসামির কাছ থেকে রাইটার নামধারি মানিক সাহার চাদাবাজি বন্ধে সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের দ্রুত হস্তক্ষেপ কামনা করছেন কারাগারের অভ্যন্তরে নির্যাতনের শিকার কয়েদি ও আসামিরা।অন্যথায় কারাগারে সংঘর্ষের আশংকা করছেন সাধারণ কয়েদিরা।

Top