জীবন-মরণ সন্ধিক্ষণে বীর মুক্তিযোদ্ধা জাফর আলম

Zafar-Pic.jpg

সিবিএন:
জীবন-মরণ যন্ত্রণায় কাতর বীর মুক্তিযোদ্ধা মোহাম্মদ জাফর আলম। স্ট্রোক ও ক্যন্সার আক্রান্ত হয়ে বিগত ৯ মাস ধরে তিনি মৃত্যুশয্যাশায়ী। অন্য দশজনের মতো হাঁটা-চলা তো দূরের কথা, ওঠে বসাও দায় এই রণবীরের। রণহুংকারে যে যোদ্ধা পাক হানাদারের গোলাবারুদকেও পরাভূত করেছিলেন, সেই মুক্তিযোদ্ধা এখন তরণীহীন। অবহেলায় শুন্য দেহে পড়ে আছে জীর্ণশীর্ণ বাড়ীতে।

দেশের গৌরব এই মুক্তিযোদ্ধার দূর্দিনে সতীর্থদের কেউ পাশে নেই।

দেশের স্বাধীনতার জন্য যিনি অস্ত্রহাতে যুদ্ধ করেছিলেন, তিনি আজ কঠিন বাস্তবতার মুখোমুখি। পাক হানাদার বাহিনীর সাথে যিনি হার মানেননি, অর্থের অভাবে চিকিৎসা করতে না পেরে তিনি মৃত্যু পথযাত্রী। বড়ই কষ্টের-যাতনার দিন বীর মুক্তিযোদ্ধা জাফর আলমের।

মুক্তিযোদ্ধা জাফর আলম কক্সবাজার সদরের ইসলামপুরের পূর্ব নাপিতখালী এলাকার বাসিন্দা। তার মুক্তিযুদ্ধের ‘লাল মুক্তিবার্তা’ নং-০২১৩০১০০১৪। সনদ নং- ৫৪১৮০। সাংসারিক জীবনে তিনি ৬ ছেলে ৪ মেয়ের জনক।

দুঃখভরা কণ্ঠে বীর মুক্তিযোদ্ধা জাফর আলম বলেন, দেশের জন্য জীবন বাজি রেখে যুদ্ধ করেছি। দীর্ঘ এক বছর ধরে কঠিন সময় পার করছি। সতীর্থদের কেউ খোঁজ নেননি।

তিনি আরো বলেন, এ পর্যন্ত ধার-দেনা করে প্রায় ৭ লাখ টাকা খরচ করেছি। এখন ধার নেওয়ার মতো কোন পথ নেই।

তার দুঃসময়ের চিত্র তুলে ধরে জেলা প্রশাসকের মাধ্যমে মাননীয় প্রধানমন্ত্রী, রাষ্ট্রপতিসহ সংশ্লিষ্টদের কাছে আবেদন পাঠানো হয়েছে।

এদিকে বীর মুক্তিযোদ্ধা জাফর আলমকে মূমূর্ষ অবস্থায় শনিবার রাতে কক্সবাজারে একটি প্রাইভেট হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে বলে জানা গেছে।

তার কঠিন সময়ে পাশে দাঁড়াতে হৃদয়বানদের প্রতি পরিবারের পক্ষ থেকে আহবান জানানো হয়েছে।

সাহায্য পাঠানোর ঠিকানা:
সঞ্চয়ী হিসাব নং-৩৪১৫৮৯৬৭
সোনালী ব্যাংক, কক্সবাজার শাখা।
বিকাশ নং-০১৮১৪৮১৭৮৪৭ (পার্সোনাল)

Top