চলে গেলেন মুক্তিযুদ্ধের বিএলএফ চট্টগ্রামের কমান্ডার এস এম ইউসুফ

sm-yousuf.jpg

এহসান আল-কুতুবী, চট্টগ্রাম থেকে:
না ফেরার দেশে চলে গেলেন কুতুব শরীফ দরবারের একনিষ্ঠ ভক্ত, বার্ষিক ওরস্ ও ফাতিহা শরীফ এন্তেজামিয়া কমিটির সভাপতি, মুক্তিযুদ্ধের বিএলএফ বা মুজিব বাহিনীর চট্টগ্রামের কমান্ডার, কেন্দ্রীয় আওয়ামী লীগের সাবেক তথ্য ও গবেষণা সম্পাদক , এস এম ইউসুফ। সোমবার রাত ২টার দিকে ঢাকার স্কয়ার হাসপাতালে তিনি মৃত্যুবরণ করেন (ইন্নালিল্লাহি ওয়া ইন্না ইলাইহি রাজেউন)।

গতরাতে ধানমন্ডির বাসায় শ্বাসকষ্টজনিত সমস্যায় গুরুতর অসুস্থ হয়ে পড়লে তাকে স্কয়ার হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়। দায়িত্বরত চিকিৎসক স্বাস্থ্যপরীক্ষার পর তাকে মৃত ঘোষণা করেন।

মৃত্যুকালে তাঁর বয়স হয়েছিল ৭০ বছর। অস্ট্রেলিয়ায় মেয়ের কাছে দীর্ঘদিন থাকার পর চলতি মাসের ৬ নভেম্বর তিনি দেশে ফিরেন। অস্ট্রেলিয়া প্রবাসী তার দুই সন্তান দেশে ফেরার পর আগামী শুক্রবার গ্রামের বাড়ি চট্টগ্রামের পটিয়ায় তাকে দাফন করা হবে বলে পারিবারিক সূত্র নিশ্চিত করেছে।

তাঁর মৃত্যুতে গভীর শোক ও শোক সন্তুপ্ত পরিবারের প্রতি সমবেদনা জ্ঞাপন করেছেন কুতুব শরীফ দরবারের শাহজাদা মাওলানা এম এম মুনিরুল মান্নান আল-মাদানী (ম:জি:আ:), শাহজাদা শেখ ফরিদ আল-কুতুবী (ম:জি:আ:),শাহজাদা অহিদুল মিল্লাত আল-কুতুবী(ম:জি:আ:), শাহজাদা আতিকুল মিল্লাত আল-কুতুবী(ম:জি:আ:), শাহজাদা সৈয়দুল মিল্লাত আল-কুতুবী(ম:জি:আ:), শাহজাদা মাওলানা জিল্লুল করিম আল-কুতুবী(ম:জি:আ:), শাহজাদা আব্দুল করিম আল-কুতুবী(ম:জি:আ:), কুতুব শরীফ দরবার এন্তেজামিয়া কমিটি, রওজা কমপ্লেক্স নির্মাণ ও বাস্তবায়ন কমিটি, দরবারের বিভিন্ন থানা কমিটির নেতৃবৃন্দ সহ দরবারের সর্বস্থরের আশেক, ভক্তগন। আল্লাহ তাঁকে জান্নাতুল ফেরদাউস নসিব করুন। আমিন।

মুক্তিযোদ্ধা এস এম ইউসুফ এর মৃত্যুতে ঢাকাস্থ পটিয়া সমিতির শোক

মুক্তিযুদ্ধের মুজিব বাহিনীর চট্টগ্রামের কমান্ডার, কেন্দ্রীয় আওয়ামী লীগের সাবেক তথ্য ও গবেষণা সম্পাদক ও বার্ষিক ওরস্ ও ফাতিহা শরীফ এন্তেজামিয়া কমিটির সভাপতি মুক্তিযোদ্ধা এস এম ইউসুফ এর ইন্তেকাল (ইন্নলিল্লাহি … রাজিউন) ঢাকার ধানমন্ডির বাসায় শ্বাসকষ্টজনিত সমস্যায় গুরুতর অসুস্থ হয়ে পড়লে সোমবার রাতে তাকে স্কয়ার হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়। সেখানে দায়িত্বরত চিকিৎসক রাত ২টার দিকে স্বাস্থ্য পরীক্ষার পর তাকে মৃত ঘোষণা করেন। মৃত্যুকালে তার বয়স হয়েছিল ৭০ বছর। অস্ট্রেলিয়ায় মেয়ের কাছে দীর্ঘদিন থাকার পর চলতি মাসের ৬ নভেম্বর তিনি দেশে ফিরেন। অস্ট্রেলিয়া প্রবাসী তার দুই সন্তান দেশে ফেরার পর আগামী শুক্রবার গ্রামের বাড়ি চট্টগ্রামের পটিয়ায় তাকে দাফন করা হবে বলে পারিবারিক সূত্র নিশ্চিত করেছে। তার মৃত্যুতে গভীর শোক প্রকাশ করেছেন ঢাকাস্থ পটিয়া সমিতি। তাঁর মৃত্যুর সংবাদ পেয়ে তাৎকনিক ভাবে ঢাকাস্থ পটিয়া সমিতির পক্ষ হতে বিশিষ্ঠ্য ব্যবসায়ী তমিজ উদ্দিন চৌধুরী, মাহবুল আলম (সভাপতি পটিয়া সমিতি), আবুল হাসেম (সেক্রেটারী পটিয়া সমিতি), শাহাদাত হোসেন হিরু (সহ সেক্রেটারী পটিয়া সমিতি) ওসমান গণি, নুরুল ইসলাম, ফিবোজ সিকদার, মোহাম্মদ আলি বাবুল ও সমিতির অন্যান্য নেতৃবৃন্দ ও সদস্যবৃন্দ। গভীর শোক প্রকাশ করেন এবং তাঁর আতœার মাগফিরাত কামনা করে শোকাহক পরিবারে প্রতি সমবেদনা জ্ঞাপন করেন।

Top