খুরুষ্কুল-চৌফলদন্ডী সড়ক সংস্কার কাজে চলছে অনিয়ম

oniom_1.jpg

মোঃ রেজাউল করিম, ঈদগাঁও, কক্সবাজার :

দীর্ঘদিন ধরে বেহাল অবস্থা বিরাজ করছে খুরুষ্কুল-চৌফলদন্ডী সড়কে। এই সড়ক দিয়ে যাতায়াত করতে গিয়ে সীমাহীন দূর্ভোগ পোহাতে হচ্ছে সাধারণ মানুষকে। শুধু তাই নয়, এই সড়ক দিয়ে যান চলাচলেও অনীহা প্রকাশ করছে চালকেরা। বছরের পর বছর ধরে খুরুশকুল সড়কে এ অবস্থা বিরাজ করলেও সেদিকে নজর ছিল না সংশ্লিষ্ট কোন কর্তৃপক্ষের এদিকে গত মাস খানেক আগে উক্ত সড়কের সংস্কার কাজ শুরু হলেও নানা অনিয়মের কারণে তার স্থায়িত্ব নিয়ে স্থানীয়দের মাঝে দেখা দিয়েছে মিশ্র প্রতিক্রিয়া। অভিযোগ উঠেছে পাহাড়ি নি¤œমানের বালি-পাথর দিয়ে চালানো হচ্ছে উক্ত সড়কের সংস্কার কাজ। অনেক ক্ষেত্রে উক্ত সড়কের পুরনো পাথরগুলো ব্যবহার করে চালানো হচ্ছে সংস্কার কাজ। সাধারণ মানুষের পাশাপাশি এই কাজ নিয়ে অসন্তোষ প্রকাশ করেছে খোদ স্থানীয় ইউপি চেয়ারম্যান জসিম উদ্দীন জসিম। চেয়ারম্যান জসিম বলেন, নি¤œমানের বালি-পাথর সম্পর্কে সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষকে অভিযোগ করা হয়েছিল। কিন্তু সওজ’র নির্বাহী প্রকৌশলী আমাকে (জসিম) জানান- সিডিউল অনুযায়ী কাজ হচ্ছে। চেয়ারম্যান জসিম বর্ষা মৌসুমে সড়কের ইট-পাথর উঠে যাওয়ার আশঙ্কা করছেন। সোমবার সরেজমিনে গিয়ে এবং স্থানীয়দের সাথে কথা বলে জানা যায়, দীর্ঘদিন ধরে সংস্কার বিহীন অবস্থায় থাকার কারণে খুরুশকুল-চৌফলদন্ডী সড়ক দিয়ে মৃত্যুর ঝুঁকি নিয়ে যাতায়াত করে আসছিল সাধারণ মানুষ। বিশেষ করে উক্ত সড়কের খুরুশকুল ব্রীজের মুখ থেকে চৌফলদন্ডী ব্রীজের আগ পর্যন্ত এই ১৫/১৬ কিলোমিটার সড়কের প্রায় অংশেই ছিল বেহাল অবস্থা। সড়কের মাঝে মাঝে ছোট-বড় শতাধিক গর্ত সৃষ্টি হওয়ায় আরো বেশী দূর্ভোগের মধ্যে পড়তে হয় যান চলাচলকারী ও সাধারণ মানুষকে। এদিকে দীর্ঘদিন পর হলেও খুরুশকুল ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান জসিম উদ্দিনের ঐকান্তিক প্রচেষ্টায় উক্ত সড়ক সংস্কারের কাজ শুরু হয়। সড়ক ও জনপদ বিভাগের তত্ত্বাবধানে ১০ কোটি টাকা ব্যয়ে উক্ত সড়কের কাজ শুরু হওয়ার পর প্রথমদিকে স্থানীয় বাসিন্দাদের মাঝে আনন্দের সৃষ্টি হলেও সম্প্রতি উক্ত সড়ক সংস্কার কাজে নি¤œমানের বালি ও পাথর ব্যবহারের কারণে সড়কের স্থায়ীত্ব নিয়ে স্থানীয়দের মাঝে দেখা দিয়েছে নানা শংকা। চৌফলদন্ডীর বাসিন্দা নাসির উদ্দিন অনেকটা ক্ষোভের সাথে বলেন, স্থানীয় জনপ্রতিনিধিদের উদাসীনতার কারণে এতদিন এই সড়ক সংস্কার কাজ হয়নি। তবে বর্তমানে কাজ শুরু হলেও চলছে নানা অনিয়ম। তাই তারও স্থায়ীত্ব কেমন হবে আমাদের জানা নাই। একই সুরে কথা বললেন খুরুশকুলের বাসিন্দা মোঃ আবুল হোসেন। তিনি বলেন, রাস্তার কাজে অনিয়ম হচ্ছে এটা আয়নার মত পরিস্কার, কিন্তু কেউ কিছূ বলতে পারছে না। এদিকে সড়ক সংস্কার কাজে নিয়োজিত এত শ্রমিক নাম প্রকাশ না করার শর্তে জানান-সড়ক সংস্কার কাজে নি¤œমানের বালি-পাথর ব্যবহার করা হচ্ছে। তাই এই সড়ক বেশিদিন টিকবে কিনা সন্দেহ রয়েছে। উক্ত কাজের ঠিকাদার বজল করিম বলেন- সিডিউল অনুযায়ীই কাজ করা হচ্ছে। তবে তিনি স্থানীয় পাথর দিয়ে কাজ করার কথা স্বীকার করেন। অন্যদিকে সড়ক ও জনপদ বিভাগের নির্বাহী প্রকৌশলী রানা প্রিয় বড়–য়াও সিডিউল অনুযায়ী কাজ চলছে বলে জানিয়ে বলেন- সড়ক বিভাগের লোকজন প্রতিনিয়ত উক্ত সংস্কার কাজ তদারকি করছে।

Top