খুটাখালী বাজার অবৈধ স্থাপনা দখল দূষণে জৌলুস হারাচ্ছে

KHUTAKHALI-BAZAR.jpg

সেলিম উদ্দিন, ঈদগাঁও (কক্সবাজার) :

চকরিয়া উপজেলার খুটাখালী বাজার ঐতিহ্য হারাতে বসেছে। অবৈধ স্থাপনা, অব্যবস্থাপনা, দখল, দূষণ ও ড্রেনেজ অব্যবস্থার কারণে আগের সেই জৌলুস হারাচ্ছে । বহুকাল ধরে এ বাজারের অনেক সুনাম থাকলেও এখন তাতে যেন ভাটার টান। বাজার ব্যবস্থাপনা কমিটি না থাকায় ছোঁয়া লাগছে না প্রায় অর্ধশত বছরের পুরনো এ বাজারে।

স্থানীয়রা জানান, উপজেলার খুটাখালীর মানুষ ছাড়াও পার্শ্ববর্তী উপজেলার লোকজন এ বাজারে বাজার করতে আসে। সপ্তাহের রবিবার ও বুধবার বসে বাজার। বাকি দিনগুলোতে সওদা কম হয়না এ বাজারে। বাজারের ব্যবসায়ীরা বলেন, নিয়ম-নীতি না মেনে যেখানে সেখানে বসছে বাজার, যত্রতত্র ময়লা-আবর্জনা ফেলার কারণে দূষিত হচ্ছে পরিবেশ, ড্রেনগুলো ময়লা আবর্জনায় ভরাট হয়ে গিয়ে পানি নিষ্কাশনের সুবিধা না থাকায় সামান্য বৃষ্টিতেই রাস্তায় পানি জমে চলাচলের অনুপযোগী হয়ে পড়ে। এছাড়া সড়কের এক-তৃতীয়াংশ জায়গা দখল করে ভাসমান দোকান বসার কারণে প্রতিদিন মহাসড়কে দীর্ঘ যানজটের সৃষ্টি হচ্ছে। এতে স্কুল কলেজের শিক্ষার্থীদের চলাচলে চরম ভোগান্তি পোহাতে হয়। উদ্বেগজনকভাবে বেড়েছে চুরির ঘটনা। গত ৯ মাসে ৭টি ব্যবসা প্রতিষ্ঠান চুরি হয়েছে।

সরজমিনে খুটাখালী বাজারে গিয়ে দেখা গেছে, যত্রতত্র দোকানপাট, সড়ক দখল করে সিএনজি/টমটম স্ট্যান্ড কারণে যানজট সৃষ্টি হচ্ছে। এছাড়া দোকানের বাহিরে ফুটপাতে বা রাস্তায় বসেছে অসংখ্য ভাসমান দোকান। এই অঞ্চলের প্রাচীন বাজার হলেও নেই কোন স্বাস্থ্যসম্মত গণশৌচাগার ব্যবস্থা। এমনকি বাজারের চলছে জমজমাট মাদক ব্যবসা।

বাজার ব্যবসায়ী সমিতির নেতৃবৃন্দরা বলেন, বাজারে প্রায় ৪শতাধিক ছোট-বড় ব্যবসায়ী রয়েছে। সরকার প্রতিবছর বিপুল রাজস্ব নিয়ে বাজার ইজারা দিলেও উনড়বয়ন নগন্য।

জানা গেছে, ২০১২ সালের বাজার কমিটির নির্বাচন অনুষ্ঠিত হয়। ৩ বছর মেয়াদী এ কমিটির মেয়াদ উত্তীনড়ব হয়েছে। কিন্তু এই কমিটির উদাসীনতার কারণে বাজারের এই হাল বলে জানিয়েছেন অনেক ব্যবসায়ী। বাজারের ইজারাদাররা বাজার অব্যবস্থাপনার কথা অস্বীকার করে ব্যক্তিগত খরচে প্রত্যেকদিন বাজার পরিষ্কার করেন বলে জানান।

খুটাখালী ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান মাওলানা আবদুর রহমান বাজারের অব্যবস্থাপনার কথা স্বীকার করে বাজার ছোট হওয়াতে জায়গার সংকট রয়েছে বলে জানান।

চকরিয়া উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মো: শাহেদুল ইসলাম বাজারের সমস্যার ব্যাপারে ব্যবসায়ীরা তাকে জানিয়েছেন জানিয়ে তিনি খোঁজ খবর নিয়ে সমস্যা সমাধানের চেষ্টা করবেন বলে জানান।

Top