কলম্বিয়ায় বিধ্বস্ত বিমানের ৭৬ আরোহী নিহত, জীবিত ৫

kolom.jpg

ব্রাজিলের একটি ফুটবল ক্লাবের সদস্যসহ ৮১ আরোহীকে নিয়ে কলম্বিয়ায় বিধ্বস্ত হওয়া বিমানটির ৭৬ জনেরই নিহত হওয়ার কথা জানিয়েছে স্থানীয় পুলিশ কর্তৃক্ষ। জীবিত উদ্ধার হয়েছেন ৫ জন। কলম্বিয়া পুলিশের বরাত দিয়ে আন্তর্জাতিক সংবাদমাধ্যমগুলো খবরটি নিশ্চিত করেছে। এর আগে, স্থানীয় সংবাদমাধ্যম সূত্রে বিধ্বস্ত বিমানটি থেকে ৬-১৫ জন আরোহী জীবিত উদ্ধারের খবর পাওয়া গিয়েছিল। অবশ্য, কলম্বিয়া পুলিশ জানিয়েছে, ছয়জন জীবিত উদ্ধারের খবরটি সঠিক, কিন্তু সেই ছয়জনের একজন হাসপাতালে নেওয়ার পর মারা গেছেন। আর তাই সব মিলে মৃতের সংখ্যা ৭৬ জনে দাঁড়িয়েছে। আর জীবিত আছেন ৫ জন। কলম্বিয়া বিমান চলাচল কর্তৃপক্ষের তরফে হতাহতের এ সংখ্যা নিশ্চিত করা হয়নি।

উল্লেখ্য, বলিভিয়া থেকে যাত্রা করার পর স্থানীয় সময় মঙ্গলবার রাত ১০টা ১৫ মিনিটে কলম্বিয়ার লা ইউনিয়নের কেরো গোর্দো শহরের কাছে বিমানটি বিধ্বস্ত হয়। দুর্ঘটনার শিকার বিমানটি পরিচালনা করতো ভেনেজুয়েলা’র বিমান সংস্থা লামিয়া। বিমানটি কলম্বিয়ার জোসে মারিয়া কর্ডোভা আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরের উদ্দেশ্যে যাত্রা করেছিল। তবে উড্ডয়নের কিছুক্ষণ পরই রাডারের সঙ্গে বিমানটির সংযোগ বিচ্ছিন্ন হয়ে পড়ে। বিমান বিধ্বস্তের ঘটনায় ৭৬ জন নিহত হওয়ার খবর জানিয়েছে স্থানীয় পুলিশ। কলম্বিয়ার আঞ্চলিক পুলিশ কমান্ডার জোস গেরার্ডো আচেভেদো সাংবাদিকদের কাছে হতাহতদের সংখ্যা নিশ্চিত করেন বলে জানিয়েছে ব্রিটিশ সংবাদমাধ্যম গার্ডিয়ান। তিনি বলেন, ‘ছয় ব্যক্তি জীবিত উদ্ধার হয়েছিলেন কিন্তু দুর্ভাগ্যজনকভাবে একজন পরে মারা গেছেন। দুর্ভাগ্যজনকভাবে বিমানের বাকি আরোহীরা মারা গেছেন। নিহতের সংখ্যা ৭৬।’
গার্ডিয়ান জানিয়েছে, বৈরি আবহাওয়ার কারণে উদ্ধার তৎপরতা ব্যাহত হচ্ছে। ঘটনাস্থলে ৯০ জন জরুরি উদ্ধারকর্মী নিয়োজিত আছেন। স্থানীয় সংবাদ সূত্রের বরাতে রয়টার্স জানিয়েছে, সূর্য ওঠার পর মৃতদেহ উদ্ধারের কাজ শুরু হবে।  এদিকে ফরাসি বার্তা সংস্থা এএফপি জানিয়েছে, এখন পর্যন্ত ২৫টি মরদেহ উদ্ধার করা হয়েছে।

বিমানটিতে ব্রাজিলের ফুটবল ক্লাব চাপেকোয়েন্সের ২২ সদস্য ছিলেন। বিভিন্ন খবরে দাবি করা হয়েছে, জীবিতদের ৫ জনের মধ্যে ৩ জন চাপেকোয়েন্সের সদস্য। এদের মধ্যে দলের গোলরক্ষকও রয়েছেন। এছাড়া বিমানটিতে ২১ জন সাংবাদিকও ছিলেন বলে বিভিন্ন খবরকে উদ্ধৃত করে জানিয়েছে ব্রিটিশ সংবাদমাধ্যম গার্ডিয়ান।
বিমানটি বিধ্বস্ত হওয়ার পর ফেসবুক পেজে এ নিয়ে একটি বিবৃতি দেয় ব্রাজিলের ফুটবল ক্লাব চাপেকোয়েন্স কর্তৃপক্ষ। কলম্বিয়া বিমান চলাচল কর্তৃপক্ষের পক্ষ থেকে আনুষ্ঠানিক ঘোষণা না আসা পর্যন্ত কোনও কিছু বলতে অনিচ্ছা জানিয়েছে তারা।

ব্রাজিলের ফুটবল ক্লাব চাপেকোয়েনসের ওই ফুটবল দলটি লাতিন অঞ্চলের ক্লাব ফুটবল প্রতিযোগিতা কোপা সুদামেরিকানার চূড়ান্ত পর্যায়ে খেলার কথা ছিল। বুধবার মেডেলিনে আতলেতিকো ন্যাশিওনালের বিপক্ষে দলটির পরবর্তী ম্যাচ অনুষ্ঠিত হওয়ার কথা ছিল। তবে মঙ্গলবারের এ দুর্ঘটনার পর এ টুর্নামেন্ট স্থগিতের ঘোষণা দিয়েছে দক্ষিণ আমেরিকার ফুটবল কনফেডারেশন কনমেবল। দুর্ঘটনার শিকার বিমানটি পরিচালনা করতো ভেনেজুয়েলা’র বিমান সংস্থা লামিয়া। বিমানটি ভিরু ভিরু বিমানবন্দর থেকে কলম্বিয়ার জোসে মারিয়া কর্ডোভা আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরের উদ্দেশ্যে যাত্রা করেছিল।

Top