কক্সবাজার-টেকনাফ রোডে স্পেশাল সার্ভিসে যাত্রী হয়রানী

bus.jpg

টেকনাফ সংবাদদাতা:
কক্সবাজার-টেকনাফ রোডে চলাচলকারী স্পেশাল বাসের বিরুদ্ধে যাত্রী হয়রানীর অভিযোগ ওঠেছে। বিনা কারণে যাত্রীদের সাথে ঘটছে বাকবিতন্ডা। আনাড়ী চালক-হেলপারদের কারণে হয়রানীর শিকার সাধারণ মানুষ।
এমন একটি ঘটনা ঘটেছে রবিবার (১৩ নভেম্বর)
অভিযোগ হচ্ছে- কক্সবাজার থেকে টেকনাফগামী কক্সবাজার-জ-১১-০১১৩ নাম্বারধারী ‘সরাসরি স্পেশাল সার্ভিস’ কক্সবাজার কেন্দ্রীয় বাস টার্মিনাল থেকে বিকাল ৫টা ছাড়ে।
বাসটি যাত্রাপথে সড়কের বিভিন্ন স্থানে অহেতুক দাঁড়িয়ে দাঁড়িয়ে টিকেট বিহীন অতিরিক্ত যাত্রী তুলে।
টিকেট নিয়ে যাতায়তকারী উক্ত উপস্থিত যাত্রীরা বাঁধা সৃষ্টি করলে উল্টো ড্রাইভার মমতাজ দম্ভত্তি দিয়ে বলে “যাত্রী উঠালে কি হয়? আমার গাড়ীতে আমি যাত্রী উঠাব; তাতে তোমাদের কি?” ইত্যাদি
এভাবে চলন্ত অবস্থায় তর্ক করতে করতে টিকেট নিয়ে যাতায়কারী যাত্রীদের চরম দূর্ভোগ ও হয়রানীর শিকার হতে হয়। এতে যাতায়তকারী যাত্রী ০৮নং সিটের নুরুল ইসলাম সওদাগর ও ০৯নং সিটের কাসেম বাধা প্রদান করলে তাদেরকে এক পর্যায়ে ড্রাইভার হেলপাররা মারতে উদ্যত হয়।
বাঁধা দিতে চাইলে চালক মমতাজ দম্ভুক্তি করে বলে- “এভাবে চলবে আমাদের গাড়ী, ভালো লাগলে উঠবে, ভালো না লাগলে উঠবে না”। এভাবে আরো যাত্রী হয়রানী ও দূর্ভোগের শিকার হয়েছে বলে অভিযোগ করে। অথচ গাড়ী এবং টিকেটে লিখা আছে ‘ক্লোজ ডোর নন স্টপ সার্ভিস”। কিন্তু এ গাড়ীটি যাত্রা পথেই দরজা কোন ধরণের বন্ধ করে নাই এবং যাত্রাপথে নিয়ম বর্হির্ভূতভাবে একের পর এক যাত্রী তুললেও কর্তৃপক্ষের কোন তদারকি নেই।
বিষয়টি বিবেচনায় এনে সংশ্লিষ্ট ড্রাইভার, সুপারভাইজার ও হেলপারদের বিরুদ্ধে যথাযথ ব্যবস্থা ও যাত্রীদের নিয়মিত হয়রানী ও দূর্ভোগ থেকে বাঁচাতে স্পেশাল সার্ভিস কর্তৃপক্ষ ও কক্সবাজার বাস মিনিবাস মালিক গ্রুপ কর্তৃপক্ষকে এগিয়ে আসার আহবান যাতায়তকারী যাত্রীসাধারণের।

Top