এতিম বান্ধব ইউএনও

FB_IMG_1479222143856.jpg

রফিক মাহামুদ, উখিয়া
যার পরিচয় নতুন করে দেওয়ার প্রয়োজন নেই! ইউএনও হিসেবে উখিয়া উপজেলায় যোগদান করার পর থেকে একের পর এক জনবান্ধব কাজ করে যিনি আলোচনায়। যাকে নিয়ে এত মাতামাতি, এত আলোচনা সেই ইউএনও মাঈন উদ্দিন এখন এতিম ও গরীব বান্ধব ইউএনও হিসেবে পরিচিতি পেয়েছেন উখিয়ার গনমানুষের কাছে। গরীব ও এতিমদের সহযোগিতায় তিনি সব সময় এগিয়ে এসেছেন, এখনো চালিয়ে যাচ্ছেন যেখানে পাচ্ছেন। গতকাল১৫ নভেম্বর তিনি কুতুপালং উচ্চ বিদ্যালয়ে জেএসসি পরীক্ষা কেন্দ্র পরিদর্শনে গিয়ে ছাত্র-ছাত্রীদের পড়ালেখার খোঁজ-খবর নেওয়ার পাশা-পাশি পোশাক-আশাকের বিষয়টিও গভীরভাবে লক্ষ্য করেন। এক পর্যায়ে তিনি পিতা-মাতাহীন অসহায় ১৫ জন শিক্ষার্থীকে খুঁজে বের করে নতুন স্কুল ড্রেস সেলাই করে দেওয়ার ব্যবস্থা করেন। এছাড়াও গত ৮ নভেম্বর তিনি অাকস্মিক উপকূলীয় ইউনিয়ন জালিয়াপালং এলাকার চেপটখালী সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় পরিদর্শনে গিয়েও ছাত্র-ছাত্রীদের পড়া-লেখার পাশা-পাশি অসহায়, হতদরিদ্র, পিতা-মাতাহীন ৬ জন ছাত্র-ছাত্রীকে বাছাই করে পাশ্ববর্তী ষ্টেশনে নিয়ে নতুন স্কুল ড্রেস সেলাই করে দেওয়ার ব্যাবস্থা করে দেন।
এ ব্যাপারে জানতে চাওয়া হলে ইউএনও মোঃ মাঈন উদ্দিন বলেন, অামার ব্যক্তিগত বেতনের টাকা দিয়ে মানবিক দিক বিবেছনা করে অসহায়, গরিব, এতিমদের জন্য কিছু করতে পারলে অামার ভাল লাগে তাই শিক্ষার্থীদের সহযোগীতা করে যাচ্ছে বলে জানান।

Top