উখিয়ায় ভূমিদস্যুদের হামলায় আহত-৫ , সুপারী গাছ কর্তন

Ukhiya-shopari-tree.jpg

রফিক মাহামুদ, উখিয়া ॥

উখিয়ায় জোর পূর্বক বসতভিটা দখলের চেষ্টায় হামলা চালিয়েছে ভূমিদস্যুরা। এ সময় সন্ত্রাসীদের বাঁধা দিতে গিয়ে আহত হয়েছে মহিলাসহ অনন্ত পক্ষে ৫ জন। ভূমিদস্যুদের হাত থেকে রেহায় পায়নি বসতভিটার সুপারি গাছ। বসতভিটার বাগানের প্রায় ১২/১৪টি সুপারী গাছ কর্তন করে বীরদর্পে হুমকি প্রদর্শন করে চলে যায় উক্ত ভূমিদস্যু বাহিনী।

জানা গেছে, গত ২৫ নভেম্বর সকাল ১০ টার দিকে উখিয়া উপজেলার রত্নাপালং ইউনিয়নের তেলিপাড়া গ্রামের বাসিন্দা খোরশেদ আলমের বসতভিটার জমি দখলের নেওয়ার জন্য স্থানীয় ভূমিদস্যু মৃত বাদশা মিয়ার পুত্র নুরুল আমিন, মোঃ রাশেল ও একই এলাকার মৃত শামশু মিয়ার পুত্র শফি আলম সহ ৪/৫ জনের ভূমিদস্যু বাহিনী একই এলাকার খোরশেদ আলমের বসতভিটা দখলের চেষ্টা চালিয়ে বসতভিটার ঘিরা বেড়া ভাংচুর করে ব্যাপক ক্ষতি সাধন করে ও বাগানের ১২/১৪টি সুপারি গাছ নির্বিচারে কর্তন করে। যা প্রকৃতির সাথে নিষ্ঠুরতার পরিচয় দেয়। হামলার সময় বাঁধা দিতে গিয়ে মহিলাসহ আহত হয়েছেন ৫ জন। আহতরা হলেন বয়ঃবৃদ্ধ জুনু বিবি (৭০), জোবাইদা আক্তার (২০), নুর মহল বেগম (৫৩), সাহাব মিয়া (৫০), রেজাউল করিম (২৮) গুরুত্বর আহত হয়। আহতদের উখিয়া সদর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

এই ব্যাপারে খোরশেদ আলম বলেন, আমার পৈত্রিক সূত্রে পাওয়া বসতভিটা দখল করার জন্য উক্ত সন্ত্রাসী বাহিনীনিরা দীর্ঘ দিন ধরে চেষ্টা চালিয়ে আসছিল। তারই ধারাবাহিকতায় গতকাল হামলা চালিয়ে আমার বসতভিটা দখলের চেষ্টা করে। ভূমিদস্যুদের বিরোদ্ধে মামলার প্রক্রিয়া চলছে বলে তিনি জানান।

এ ব্যাপারে উখিয়া থানার অফিসার ইনচার্জ মোঃ আবুল খায়ের কাছে জানতে চাওয়া হলে তিনি ঘটনার সত্যতা স্বীকার করে বলেন, খবর পেয়ে ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছি। তদন্ত পূর্বক সন্ত্রাসীদের বিরোদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

Top