উখিয়ায় দোকান নির্মাণে ভূমিদস্যুদের বাঁধা: হুমকিতে অসহায় ভূমি মালিক

ukhiya-upa-zila-coxsbazar-news_3.jpg

 

আবদুর রহিম সেলিম, উখিয়া: তাং-০৯.১১.১৬ ইং

উখিয়ার রোহিঙ্গা অধ্যুষিত এলাকা কুতুপালং পশ্চিম পাড়ায় সম্পত্তি জবর দখলের ঘটনাকে কেন্দ্র করে দু’পক্ষের মধ্যে উত্তেজনা দেখা দিয়েছে। এ ঘটনার সুষ্ট সমাধান না হলে এলাকায় যে কোন মুর্হুতে রক্তক্ষয়ী সংঘর্ষের আশংকা করছেন স্থানীয়রা। গত কয়েক দিন ধরে কুতুপালং পশ্চিম পাড়া গ্রামের মৃত মীর কাসেমের ছেলে মনজুর আলম ড্রাইভার ১৫ শতক জায়গার উপর বসত ঘর নির্মাণসহ ৪টি দোকান গৃহ নির্মাণ করে বহু বছর যাবৎ শান্তিপূর্ণভাবে ভোগ দখল করে আসছে। এলাকায় জমির মূল্য বেড়ে যাওয়ায় গত কিছু দিন পূর্ব হতে একই এলাকার মোহাম্মদ হোছনের ছেলে ইয়াবা পাচারকারী শাহ জাহান, মোঃ হোছন, রশিদ আহামদ, ইয়াবা পাচারকারী আলমগীরসহ ৫/৬ জন অজ্ঞাত ভূমিদস্যূ সন্ত্রাসিরা মনজুর ড্রাইভারের ক্রয়কৃত বর্ণিত বসত ভিটার কিছু জমি জোরপূর্বক দখলের পায়তারা করে বিভিন্নভাবে তাকে হুমকি দমকি দিয়ে আসছে। গত ৫ নভেম্বর সকাল ৮ টার দিকে মনজুর ড্রাইভার তার স্বত্ব দখলীয় জমিতে দোকান নিমার্ণের উদ্দেশ্যে ইট, বালি মজুদ করে। যথাসময়ে মনজুর ড্রাইভারের লেবারগণ কাজ আরম্ভ করলে কথিত ভূমিদস্যু সন্ত্রাসী শাহ জাহানের নেতৃত্বে ৫/৬ জন ধারালো দা, কিরিচ, লাটিসোটা ও অস্ত্রশস্ত্র নিয়ে জমি দখলের উদ্দেশ্যে হাঙ্গামা করে লেবারদের তাড়িয়ে দেওয়ার পাশাপাশি মনজুর ড্রাইভার ও তার স্ত্রী শাহিনা বেগমকে সন্ত্রাসীরা বিশ্রী ও অশ্রভ্য ভাষায় গালমন্দ করার পর দোকান ভাংচুর করে। এ ঘটনায় মনজুর আলম ড্রাইভার বিষয়টি স্থানীয় ইউপি সদস্য বখতিয়ার আহমদ মেম্বার ও উপজেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি হামিদুল হক চৌধুরী ও সাধারণ সম্পাদক ইউপি চেয়ারম্যান জাহাঙ্গীর কবির চৌধুরীকে মৌখিকভাবে অবগত করার পর ৪ জনকে আসামি করে উখিয়া থানায় মনজুর ড্রাইভার বাদী হয়ে ভূমিদস্যু সন্ত্রাসী ইয়াবা পাচারকারী শাহজাহানের বিরুদ্ধে একটি মামলা দায়ের করেন। বর্তমানে মামলাটি তদন্তের পর্যায়ে রয়েছে বলে পুলিশ জানিয়েছে।

এছাড়া গত ১১ নভেম্বর সকালে লেবার নিয়ে পুনরায় দোকান ঘর নির্মাণের কাজ শুরু করলে ইয়াবা পাচারকারী শাহজানের নেতৃত্বে ভূমিদস্যূরা আবারো পরিকল্পিত হামলা চালিয়ে মনজুর ড্রাইভারের নিকট থেকে ২ লক্ষ টাকা চাঁদা দাবী করেন। এ ঘটনায় অসহায় মনজুর ড্রাইভার বিষয়টি স্থানীয়ভাবে সমাধান করার উদ্দেশ্যে ইউপি মেম্বার বখতিয়ার আহমদকে জানালে তিনি গত ৯ নভেম্বর বুধবার বিকালে শান্তিপূর্ণ সমাধানের চেষ্টা চালান। কিন্তু ভূমিদস্যূ সন্ত্রাসী ইয়াবা পাচারকারী শাহজানের দলবল বিচার অমান্য করে হুমকি দিয়ে শালিসী স্থান ত্যাগ করে বলে জানা গেছে।

এ দিকে মনজুর ড্রাইভারকে ইতিপূর্বে বিদেশ নেওয়ার প্রলোভন দেখিয়ে ৩ লক্ষ ৫৪ হাজার নগদ টাকা হাতিয়ে নিয়ে কথিত শাহজান উল্টো তার মামা আবুল কালামকে বিদেশ পাঠিয়ে দেন। যা অসহায় মনজুর পাওনা টাকা আদায় করতে পারেনি। তাছাড়া মনজুর ড্রাইভারকে মিথ্যা ও সাজানো একটি ষড়যন্ত্র মূলক মামলায় ফাসিয়ে দীর্ঘদিন কারাভোগ করতে বাধ্য করান কথিত ইয়াবা শাহজান ও আলমগীর। বর্তমানে অসহায় মনজুর ভূমিদস্যু সন্ত্রাসীদের শাহজান বাহিনীর অব্যাহত হুমকির মুখে চরম নিরাপত্তাহীনতায় রয়েছে। ইউপি সদস্য বখতিয়ার আহমদ ঘটনার সত্যতা স্বীকার করে বলেন, বিষয়টি স্থানীয়ভাবে নিষ্পত্তির চেষ্টা করা হচ্ছে। উখিয়া থানার ওসি মোঃ আবুল খায়ের বিষয়টি খতিয়ে দেখে ব্যবস্থা নিচ্ছেন বলে জানান।

Top