ঈদগাঁও থেকে দেড় হাজার ইয়াবাসহ টেকনাফের মহিলা আটক

Yaba-1_1.jpg

শাহিদ মোস্তফা শাহিদ, ঈদগাঁও:
কক্সবাজার সদরের ঈদগাঁও থেকে প্রায় দেড় হাজার পিস ইয়াবাসহ টেকনাফের এক মহিলাকে আটক করেছে পুলিশ।
শনিবার (১৯ নভেম্বর) দিবাগত রাত সাড়ে ৮টার সময় গোপন সংবাদের ভিত্তিতে সৌদিয়া চেয়ারকোচ তল্লাশী চালিয়ে মহিলাকে আটক করা হয়। এসময় সন্দেহজনক আরো তিন জনকে আটক করে পুলিশ। তাদের জিজ্ঞাসাবাদ চলছে।
আটককৃত মহিলা আয়েশা বেগম (৩৫) টেকনাফ পৌরসভার ইসলামাবাদের হেলাল মুন্সীর ২য় স্ত্রী এবং পৌরসভা ৬নং ওয়ার্ড কলেজ পাড়ার কাঁচামাল ব্যবসায়ী কালা মিয়া ও নূর আয়েশা বেগমের মেয়ে। তবে, বিপুল পরিমাণ ইয়াবা জব্দ করার খবর পাওয়া গেলেও পুলিশের ভাষ্য প্রায় ১৫০০ পিস।
ঈদগাঁও পুলিশ তদন্ত কেন্দ্র টু-আইসি আমজাদ আলী চৌধুরী জানান, তিনি গোপন সংবাদের ভিত্তিতে খবর পেয়ে ঈদগাঁও বাসস্টেশনে চট্টমেট্রো-ব-১১০৬৮৩ নং এর একটি সৌদিয়া চেয়ারকোচে তল্লাশী চালান। গাড়ীটি কক্সবাজার থেকে ঢাকা যাচ্ছিল। এসময় তিনি ধৃত আয়েশা বেগমের সিটের সম্মুখে লুকানো অবস্থায় প্রায় ১৪৭০ পিস ইয়াবা জব্দ করেন। অভিযানে অংশ নেয়া এএসআই মহিউদ্দীন জানান, উক্ত গাড়ীতে একই টিকেটে ৪ জন যাত্রী কক্সবাজার থেকে রওয়ানা দেয়। তল্লাশীর পর সন্দেহজনকভাবে একই টিকেটের বাকী তিন যাত্রীকেও জিজ্ঞাসাবাদের জন্য আটক করা হয়। তবে রাতে এ রিপোর্ট লিখা পর্যন্ত ইয়াবা পাচারে তাদের সম্পৃক্ততার কোন প্রমাণ পাওয়া যায়নি বলে জানান তিনি। এদিকে আটক আয়েশা বেগমের বিরুদ্ধে পুলিশ মাদক আইনে মামলার প্রস্তুতি চালাচ্ছিল। তবে ধৃত মহিলা অপর তিন যাত্রীর ব্যাপারে কিছুই জানেন না বলে উপস্থিত সাংবাদিকদের জানান। অন্য সূত্রমতে, জব্দ করার পরপরই পুলিশ বিপুল পরিমাণ ইয়াবা গায়েব করে ফেলে। ইয়াবা জব্দের ঘটনায় তদন্ত কেন্দ্রে স্থানীয় সাংবাদিক ও উৎসাহী জনগণের ভিড় পরিলক্ষিত হয়। এক প্রশ্নের জবাবে টু-আইসি বাকী তিন জনের ব্যাপারে খোঁজ খবর নিয়ে যথাসময়ে তথ্য সরবরাহ করা হবে বলে জানান। অন্যদিকে আটকদের ছাড়িয়ে নিতে বিভিন্ন মহল থেকে তদবির শুরু হয়েছে বলে খবর পাওয়া যাচ্ছে।

Top