ইউনিটি’র ‌ফিরে দেখা ও আগামীর কর্ম পরিকল্পনা সভা

Unity.jpg

এম আবু হেনা সাগর, ঈদগাঁও:
কক্সবাজার সদর উপজেলার বৃহত্তর ঈদগাঁওয়ের স্বেচ্ছাসেবী, শিক্ষা বান্ধব, অরাজনৈতিক ও অসাম্প্রদায়িক সংগঠন (ইউনাইটেড নভিস ইনটেগ্রিটি ফর ট্যালেন্টেড ইয়ুথ) ইউনিটি ও সাংবাদিকদের যৌথ অংশগ্রহণে ১৮ নভেম্বর সন্ধ্যা ৬টায় সংগঠনের নিজস্ব অডিটরিয়ামে ইউনিটির চেয়ারম্যান মোহাম্মদ ইবরাহীমের সভাপতিত্বে ও শিক্ষা বিভাগের পরিচালক মোজাম্মেল হকের নান্দনিক সঞ্চালনায় ও সদস্য কাউছার মুন্নার কোরআন তেলাওয়াতের মধ্য দিয়ে অনুষ্ঠিত হয়। অত্র সংগঠনের সাড়ে ৪ বছরের সফলতার দিক তুলে ধরেন স্থানীয় সাংবাদিকদের মাঝে ইউনিটির চেয়ারম্যান।
এসময় উপস্থিত ছিলেন ইউনিটির শিক্ষা বিভাগের উপদেষ্টা প্রভাষক সুলতান আহমদ, সাহিত্য ও সংস্কৃতিক বিভাগের উপদেষ্টা হুমায়ুন আজাদ ছিদ্দিকী, সদস্য আবু তৈয়ব, সাহাব উদ্দীন এমইউপি, শাহাদত হোছাইন, ইমরান, শহিদুল্লাহ, সোয়াইব, তাফসীরুল ইসলাম, মহিউদ্দীন, বেলাল, ওকার উদ্দীন ও মিজানুর রহমান।
ইউনিটির সফলতা প্রসঙ্গে সংক্ষিপ্ত বক্তব্য রাখেন দৈনিক কক্সবাজারের প্রতিনিধি এসএম তারেকুল হাসান, দৈনিক ইনানী প্রতিনিধি মোঃ রেজাউল করিম, আমাদের কক্সবাজার প্রতিনিধি সেলিম উদ্দীন, সাগর দেশের প্রতিনিধি আনোয়ার হোছাইন।
এসময় ইউনিটির চেয়ারম্যান মোঃ ইবরাহীম তাঁর স্বাগত বক্তব্যে ইউনিটির অর্জন সমূহ তুলে ধরেন। তন্মধ্যে ২০১২ সালে স্বাধীনতা দিবসে কুইজ প্রতিযোগিতা ও পুরস্কার বিতরণ, ২৫টি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে জিপিএ-৫ প্রাপ্ত শিক্ষার্থীদের সংবর্ধনা, ২০১৩ সালে সংগঠনের সদস্যদের আন্তরিকতা, দক্ষতা ও মানোন্নয়ন প্রচেষ্টা কার্যক্রম, ২০১৪ সালে ইউনিটি টি-২০ ক্রিকেট টূর্ণামেন্ট, মহান বিজয় দিবসে গরীব-দুঃস্থ ১১৩ রোগীকে ফ্রি চিকিৎসা সেবা প্রদান, ৩০টি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে জিপিএ-৫ প্রাপ্ত শিক্ষার্থীদের সংবর্ধনা, ২০১৫ সালে স্বাধীনতা দিবসে গরীব-দুঃস্থ ২৫০ রোগীকে ফ্রি চিকিৎসা সেবা প্রদান, ১৩টি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে অধ্যয়নরত ৭ম শ্রেণীর ৩৮৬ জন শিক্ষার্থীর অংশগ্রহণে ৪০জন কৃতি শিক্ষার্থীকে মেধাবৃত্তি প্রদান, সদরের ডিজিটাল উদ্ভাবনী মেলায় অংশগ্রহণ ও শীর্ষ সনদ লাভ, মহান বিজয় দিবসে বৃহত্তর ঈদগাঁওর গরীব-দুঃস্থ ৩৫০ জন শীতবস্ত্র প্রদান, ২০১৬ সালে স্বাধীনতা দিবসে সদর হাসপাতাল ব্লাড ব্যাংক ও কক্সবাজার মেডিকেল কলেজ সন্ধানীর সহযোগিতায় ২৫জনের স্বেচ্ছায় রক্তদান, সেপ্টেম্বরে জাতিসত্ত্বার কবি “মুহম্মদ নুরুল হুদা কবি ও কবিতা” বিষয়ে আলোচনা সভা, রচনা প্রতিযোগিতা ও পুরস্কার বিতরণ করেন। প্রতিষ্ঠালগ্ন থেকে এ পর্যন্ত প্রায় এক হাজার জন মুমূর্ষ রোগীকে স্বেচ্ছায় রক্তদান করা হয়। অন্যদিকে ছাত্র ও যুব সমাজকে শিক্ষা ক্ষেত্রে অনুপ্রাণিত করা, যুব ও নারী অধিকার সংরক্ষণে সহায়তা করা, প্রাকৃতিক দূর্যোগ কবলিত এলাকায় অসহায় মানুষের সাহায্যার্থে এগিয়ে আসা, সাহিত্য, ক্রীড়া, সংস্কৃতি ও বিনোদনের মাধ্যমে সৃজনশীল কাজে উৎসাহিত করা, বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি উন্নয়নে কাজ করাই হচ্ছে তাদের প্রধান লক্ষ্য-উদ্দেশ্য। সে সাথে আসন্ন ২০১৭ সালের বার্ষিক কর্ম পরিকল্পনাও পেশ করেন।
উক্ত কর্ম পরিকল্পনা ও ফিরে দেখা অনুষ্ঠানে অন্যদের মাঝে উপস্থিত ছিলেন- দৈনিক আজকের দেশবিদেশের প্রতিনিধি শাহজাহান সিরাজ, সৈকত প্রতিনিধি মিজানুর রহমান আজাদ, সমুদ্রকন্ঠ প্রতিনিধি শেফাইল উদ্দীন, আজকের কক্সবাজার প্রতিনিধি এম. আবু হেনা সাগর, দৈনিক সকালের কক্সবাজার প্রতিনিধি শাহিদ মোস্তফা শাহিদ, দৈনিক আলোকিত উখিয়া প্রতিনিধি মিছবাহ উদ্দীনসহ আরো অনেকে।

Top