শাপলাপুর ইউনিয়নে ভিজিডির কার্যক্রম মানোন্নয়নে গণশুনানি

Public-Hearig_1_1.jpg

প্রেস বিজ্ঞপ্তি :

মহেশখালী উপজেলার শাপলাপুর ইউনিয়ন পরিষদ প্রাঙ্গনে সরকারের দুঃস্থ মহিলা উন্নয়ন (ভাল্নারেভল গ্রুপ ডেভেলাপমেন্ট- ভিজিডি) কার্যক্রমের মানোন্নয়নের লক্ষ্যে এক গণশুনানি অনুষ্ঠিত হয়েছে। ২১ অক্টোবর ২০১৬ তারিখ সকাল ১০.০০ টার সময় মহেশখালী উপজেলার শাপলাপুর ইউনিয়ন পরিষদ কার্যালয় প্রাঙ্গনে বেসরকারী উন্নয়ন সংস্থা কোস্ট ট্রাস্ট কর্তৃক পরিচালিত এসজিএসপি প্রকল্পের ইউনিয়ন সিটিজেন ফোরাম-এর উদ্যোগে সরকারী সামাজিক সুরক্ষা সেবার সরকারী নীতিমালা বাস্তবায়ন নিশ্চিতকরণের লক্ষ্যে সরকারের দুঃস্থ মহিলা উন্নয়ন (ভাল্নারেভল গ্রুপ ডেভেলাপমেন্ট- ভিজিডি) কার্যক্রমের মানোন্নয়নে এক গণশুনানির আয়োজন করা হয়। ইউনিয়ন পর্যায়ে সরকারী সুরক্ষা সেবা (Government Social Protection Services) প্রদানকারী এবং সেবা গ্রহণকারীদের অংশগ্রহণে সুরক্ষা সেবার নীতিমালা এবং সুরক্ষা সেবা বাস্তবায়ন প্রক্রিয়া সম্পর্কে বিশেষ কওে ভিজিডি উপকারভোগী বাছাই বিষয়ে প্রশ্নোত্তরের মাধ্যমে গণশুনানী অনুষ্ঠিত হয়।

উক্ত গণশুনানী অনুষ্ঠানে শাপলাপুর ইউনিয়ন সিটিজেন ফোরামের সভাপতি বশির আহমদ আজাদ-এর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত সভায় প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন শাপলাপুর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান নুরুল হক, বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন, পরিষদের প্যানেল চেয়ারম্যান ও ইউপি সদস্য জসিম উদ্দিন, ইউপি সচিব প্রিয়তোষ দে, ইউপি সদস্য মনোয়ারা আকতার মিনু, ডাঃ মোস্তাক আহমেদ, আবদুস সালাম, সালেহ আহমেদ, সরকারীভাবে ভিজিডি এর দায়িত্বপ্রাপ্ত এনজিও সংস্থা ”আজাদ” এর প্রতিনিধি চন্দনা সরকার, কোস্ট ট্রাস্টের সরকারী সামাজিক সুরক্ষা ব্যবস্থার স্বচ্ছতা ও জবাবদিহিতার উন্নয়ন প্রকল্পের প্রোগ্রাম অফিসার এস এম ইকবাল হোসেন। সার্বিক তত্ত্বাবধানে ছিলেন, সামাজিক সুরক্ষা ব্যবস্থার স্বচ্ছতা ও জবাবদিহিতা উন্নয়ন প্রকল্পের ইউনিয়ন ফ্যাসিলিটেটর মো: আবু মুছা।

গণশুনানি অনুষ্ঠানে দুঃস্থ মহিলা উন্নয়ন (ভালনারেভল গ্রুপ ডেভেলাপমেন্ট- ভিজিডি) কার্যক্রমের মানোন্নয়নে অংশগ্রহণকারীদের মধ্যে থেকে কিভাবে ও কখন অন্তর্ভুক্ত হতে পারবেন এবং নিয়ম-নীতি কি আছে সে সম্পর্কে অনুষ্ঠানের প্রধান অতিথি ইউপি চেয়ারম্যান আলোচনা করেন। তিনি বলেন, ভিজিডি পাওয়ার জন্য সরকারী নীতিমালায় যা বলা হয়েছে সেগুলো সম্পর্কে অনেকে জানেন না। তাই কোস্ট ট্রাস্ট গণশুনানী অনুষ্ঠান আয়োজনের মাধ্যমে জনগণকে সচেতন করার যে উদ্যোগ নিয়েছে তার জন্য পরিষদের পক্ষ থেকে আন্তরিক ভাবে ধন্যবাদ জানাই। তিনি আরো বলেন, ২০১৭-২০১৮ অর্থ বছরের ভিজিডি চক্রের আওতায় শাপলাপুর ইউনিয়নে মোট ২৭৬টি কার্ড বরাদ্দ পেয়েছে। তিনি বলেন, প্রত্যেক ওয়ার্ডে ৩০টি কার্ড বরাদ্দ করে দিয়েছি এবং প্রত্যেক ওয়ার্ডে সভা করে প্রকাশ্যভাবে যাছাই-বাছাই করে উপযুক্ত ব্যক্তিদের নিকট বিতরণ করার ব্যবস্থা নিশ্চিত করা হবে। এলাকার জনগণের পরামর্শে সরকারী নীতিমালা অনুযায়ী ভিজিডি উপকারভোগী বাছাই করা হবে বলে তিনি সভায় সকলকে আশ্বস্থ করেন। তিনি তার ইউনিয়নের অন্যান্য সদস্যদেরকেও ভিজিডি উপকারভোগী বাছাইয়ের দিন সকলকে উপস্থিত থেকে সহযোগিতার করার জন্য আহবান জানান।

শাপলাপুর সিটিজেন ফোরাম সভাপতি বশির আহমেদ আজাদ বলেন, সরকার দুঃস্থ মানুষের জন্য ৯৬টির চেয়ে বেশি বিভিন্ন স্কীমের মাধ্যমে সহায়তা দিয়ে যাচ্ছে। গরীব মানুষের জন্য সরকার যে উদ্যোগ নিয়েছে তার মধ্যে ভিজিডি অন্যতম। শাপলাপুর ইউনিয়নের চেয়ারম্যান সিটিজেন ফোরামকে সাথে নিয়ে গত ২০ নভেম্বর থেকে চেয়ারম্যান নিজে উপস্থিত থেকে ওয়ার্ড পর্যায়ে সভা করে ভিজিডি বাছাইয়ের প্রকৃত উপকারভোগীকে ভিজিডি তালিকার অন্তর্ভুক্তি করা হচ্ছে। সভায় তিনি বলেন, সরকারী নীতিমালা অনুযায়ী প্রকাশ্য ওয়ার্ডসভা করে ভিজিডি উপকারভোগী বাছাই করার উদ্যোগ গ্রহণ করায় শাপলাপুর ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যানকে সিটিজেন ফোরাম ও কোস্ট ট্রাস্টের পক্ষ থেকে আন্তরিকভাবে ধন্যবাদ জানাই।

ইউনিয়ন পর্যায়ে সেবা প্রদানে দায়িত্বপ্রাপ্তদের কাছ থেকেও উপস্থিত অংশগ্রহণকারীরাও ভিজিডির নীতিমালা সম্পর্কেও জানতে চান। উক্ত গণশুনানীতে দুঃস্থ মহিলা উন্নয়ন ( ভালনারেভল গ্রুপ ডেভেলাপমেন্ট- ভিজিডি) কার্যক্রমের নীতিমালার উপর উপস্থিত সম্ভাব্য ও বর্তমান সেবাভোগীরা বিভিন্ন প্রশ্ন করেন এবং চেয়ারম্যান তার উত্তর দেন। বিভিন্ন ওয়ার্ড পর্যায়ের ভাতায় অন্তর্ভুক্ত হওয়ার অধিকার রাখে এমন তিন শতাধিক মহিলা গণশুনানী সভায় উপস্থিত ছিলেন।

Top