বাংলাদেশে জঙ্গিবাদের হুমকি কমেছে: হোয়াইট হাউস

1c9290a4f88a8dabbe0206073f95f05a-58747eefce8f5.jpg

ডেস্ক নিউজ:
জঙ্গিদের বিরুদ্ধে আরও কার্যকরী পদক্ষেপ নিতে বাংলাদেশের সঙ্গে যুক্তরাষ্ট্র কাজ করছে। এছাড়া বাংলাদেশে জঙ্গিবাদের হুমকি আগের তুলনায় কমেছে। বাংলা ট্রিবিউনকে দেওয়া এক সাক্ষাৎকারে হোয়াইট হাউসের ন্যাশনাল সিকিউরিটি কাউন্সিলের দক্ষিণ এশিয়া বিষয়ক জ্যেষ্ঠ পরিচালক পিটার ল্যাভয় একথা বলেছেন।

পিটার বলেন, ‘বাংলাদেশে জঙ্গিবাদের উত্থান নিয়ে আমরাও উদ্বেগে ছিলাম। জঙ্গিবাদ দমনে বাংলাদেশ সরকারের সঙ্গে আমরা কাজ করছি। এসব গোষ্ঠীর বিরুদ্ধে কার্যকরী ব্যবস্থা নিতে তাদেরকে উৎসাহিত করছি।’

তিনি বলেন, ‘বাংলাদেশে সন্ত্রাসবাদের হুমকি কমেছে। অন্তত সাম্প্রতিক মাসগুলোয় এ ধরনের হামলা কমেছে এবং আশা করি সেই ধারা অব্যাহত থাকবে।’

বাংলাদেশে ‘জঙ্গিবাদের উত্থান’ প্রশ্নে পশ্চিমা বিশ্বে বিশেষ করে যুক্তরাষ্ট্রে যে উদ্বেগ রয়েছে সে ব্যাপারে এক প্রশ্নের জবাবে এসব কথা বলেন ল্যাভয়। গত সপ্তাহে যুক্তরাষ্ট্রের পররাষ্ট্র দফতরের পক্ষ থেকে মার্কিনিদের বাংলাদেশ ভ্রমণের ক্ষেত্রে সতর্কতা বজায় রাখতে বলা হয়।

আগের ভ্রমণ সতর্কতাকে হালনাগাদ করে মার্কিন পররাষ্ট্র দফতর জানায়, ঢাকায় অবস্থিত যুক্তরাষ্ট্রের দূতাবাসের দেওয়া সতর্কতাকে আংশিক পরিবর্তন করা হয়েছে। ২০১৭ সালের ৫ জানুয়ারি থেকে এটা কার্যকর করা হয়েছে।

২০১৬ সালের ১ জুলাই গুলশানের হলি আর্টিজান বেকারিতে জঙ্গি হামলার পর মার্কিন দূতাবাসে নিয়োজিত কর্মীদের পরিবারের সদস্যদের ফেরত নিয়ে গিয়েছিল যুক্তরাষ্ট্র।

২০১৬ সালের অক্টোবরে আইএস-এর পক্ষ থেকে বাংলাদেশের সবচেয়ে ‘সুরক্ষিত অঞ্চলে’ ‘প্রবাসী, পর্যটক, কূটনীতিক, গার্মেন্ট বায়ার, মিশনারি এবং খেলোয়ারদের’ লক্ষ্য করে হামলা চালানোর হুমকি দেওয়া হয়েছিল।

মার্কিন পররাষ্ট্র দফতর জানায়, বাংলাদেশে নিয়োজিত মার্কিন সরকারি কর্মীরা যে ধরনের সম্ভাব্য হুমকিতে রয়েছেন তা সরকারের বিবেচনায় রয়েছে। সে বিবেচনা যথেষ্ট গুরুতর যে জীবন-যাপন, কর্মক্ষেত্র এবং ভ্রমণের ক্ষেত্রে তাদেরকে কড়া নিরাপত্তামূলক নির্দেশনা মেনে চলতে হচ্ছে।

Top