‘উন্নয়নের জোয়ার উন্নয়ন মেলায়’

1594-e1484093565545.jpg

হাফিজুল ইসলাম চৌধুরী :

কক্সবাজার শহিদ দৌলত ময়দানে উন্নয়ন মেলার দ্বিতীয় দিনেও ছিল দর্শনার্থীদের ভিড়। অনেকেই মেলায় বিভিন্ন তথ্য জানার বিষয়ে আগ্রহ দেখায়। সরকারের বিভিন্ন প্রতিষ্ঠান ও সংস্থার অংশগ্রহণে শুরু হওয়া তিন দিনব্যাপী এই মেলা থেকে সরকারি সেবা গ্রহণের নানা তথ্য পাচ্ছেন দর্শনার্থীরা।

শুধু সেবা প্রদানই নয়, দর্শনার্থীদের সামনে সরকারের বিভিন্ন উন্নয়নমূলক কর্মকান্ড তুলে ধরা হয়েছে, এই মেলায়। সাধারণ মানুষ জানিয়েছেন, সঠিক ধারণা না থাকায় এতদিন সরকারি সেবা নিতে গিয়ে প্রায়ই ভোগান্তিতে পড়েন তারা। মেলায় বাংলাদেশ সেনাবাহিনীর মাটির গুহার একটি নান্দনিক স্টল রয়েছে। আর এই স্টল আগ্রহ নিয়ে দেখছে মেলায় আসা দর্শনার্থীরা।

‘উন্নয়নের গণতন্ত্র, শেখ হাসিনার মূলমন্ত্র’ প্রতিপাদ্য নিয়ে সোমবার মেলা শুরু হয়। মেলা প্রাঙ্গনে এই সময়ের উন্নয়ন আর সুশাসনে বাংলাদেশ কতটা এগিয়েছে, সেসবই প্রাধান্য পাচ্ছে। বিষয়টি সহজেই ধরা পড়বে যদি আপনি উন্নয়ন মেলার স্টলগুলো ঘুরে দেখেন। সরকারের বিভিন্ন দপ্তর তো বটেই, এ দেশে কার্যক্রম পরিচালনাকারী বিভিন্ন আন্তর্জাতিক সংস্থা ও এনজিও তুলে ধরেছে তাদের কার্যক্রম কীভাবে বাংলাদেশকে এগিয়ে নিচ্ছে। সরকারি-বেসরকারি সব স্টলজুড়েই কেবল উন্নয়ন আর উন্নয়ন। মেলায় মোট ৮০টি স্টল ঠাঁই পেয়েছে। এর মধ্যে বেসরকারী স্টল রয়েছে ১০টি।

মেলা ঘুরে দেখা গেছে জেলা প্রশাসন, সেনা বাহিনী, উপজেলা ভূমি অফিস, জেলা পুলিশ, স্বাস্থ্য বিভাগ, বিদ্যুৎ বিভাগ, পল্লী বিদ্যুৎ সমিতি, বিআরটিএ, পরিবেশ অধিদপ্তর, বনবিভাগ, আয়কর বিভাগ, কাস্টমস বিভাগ, আবহাওয়া অফিস, আঞ্চলিক পাসপোর্ট অফিস, জেলা মৎস্য অফিস, সড়ক বিভাগ, প্রাণি সম্পদ বিভাগ, বিসিক, কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তর এবং বিভিন্ন এনজিও সংস্থার স্টলে তুলে ধরেছে তাদের এমন সব প্রকল্পের কথা, যেগুলো বাংলাদেশ তথা কক্সবাজারের চিত্র পাল্টে দিয়েছে। কেউ তুলে ধরেছে দারিদ্র্য বিমোচনে নিজেদের সাফল্য। উন্নয়ন মেলার উদ্বোধনী দিনেই ভিড় ছিল চোখে পড়ার মত। উন্নয়ন মেলায় উন্নয়ন সম্পর্কে জানতে স্টলে-স্টলে ছিল দর্শনার্থীদের সরব উপস্থিতি।

২০২১ সালের মধ্যে ক্ষুধা ও দারিদ্র্যমুক্ত মধ্যমআয়ের দেশ এবং ২০৪১ সালের মধ্যে উন্নত বাংলাদেশ বিনির্মাণে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার যুগান্তকারী পরিকল্পনা ও বিশেষ উদ্যোগগুলো জনগণের সামনে তুলে ধরতে বঙ্গবন্ধুর স্বদেশ প্রত্যাবর্তন দিবস উপলক্ষে এই মেলার আয়োজন করা হয়েছে।

মঙ্গলবার মেলায় আসা কলেজ শিক্ষার্থী ইনজামাম উল হক চৌধুরী বলেন, বর্তমান সরকার কক্সবাজারে অভূতপূর্ব উন্নয়ন করেছে বলে বিভিন্নভাবে শুনে আসছি। বাস্তবে উন্নয়নের সেসব তথ্য জানতে মেলায় এসেছি। উন্নয়নের বাস্তবতা জেনে খুশি লাগছে।

শিক্ষক সুকুমার বড়–য়া বলেন, শিক্ষাক্ষেত্রে সরকার ব্যাপক উন্নয়ন করেছে। অসংখ্য শিক্ষা প্রতিষ্ঠান সরকারি করেছে। শিক্ষকদের বেতন-ভাতা বাড়ানো হয়েছে। এসব তথ্য পুরোপুরি জানা নেই। এখানে এসে আরও ভালোভাবে জানা গেলো। মোহাম্মদ ইসমাঈল ও ফরহাদ আলীসহ বেশ কয়েকজন দর্শনার্থী বলেন, বর্তমান সরকার কীভাবে কোথায় উন্নয়ন করছে তা জানার আগ্রহ থেকেই মেলায় আসা।

Top